পড়তে পারবেন < 1 মিনিটে

।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

ম্যানচেস্টার সিটি, পিএসজি, ইন্টার মিলান এবং ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। লিওনেল মেসিকে নিজেদের দলে সই করানোর দাবিদার ছিল এই চার ক্লাব। এবার সেই দৌড়ে নতুন আর এক ক্লাবও প্রবেশ করল। আর সেটা জুভেন্টাস।

শোনা যাচ্ছে, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর পাশে লিওনেল মেসিকে রেখে ফরোয়ার্ড লাইন সাজানোর স্বপ্ন দেখছেন জুভেন্টাস কর্মকর্তারা। ইতিমধ্যেই মেসির এজেন্টের সঙ্গে প্রাথমিক কথাবার্তা সেরে নিয়েছে জুভেন্টাস। সূত্রের খবর, মেসিকে সই করানোর দৌড়ে এগিয়ে থাকা দুই ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটি এবং পিএসজিকে টেক্কা দিতে মেসির বাবার সঙ্গেও নাকি কথা বলেছে সিরি এ চ্যাম্পিয়নরা।

তবে জুভেন্টাস মেসিকে সই করানোর ইচ্ছাপ্রকাশ করলেও এখনও ফেভারিট ম্যানচেস্টার সিটি। পেপ গুয়ার্দিওলা কয়েকদিন আগেই নাকি ফোনে কথা বলেছেন মেসির সঙ্গে। স্প্যানিশ কোচ মেসিকে জানিয়ে দেন, তাকে ম্যানচেস্টার সিটিতে আনতে সব রকমের চেষ্টা করবে ক্লাব। তবে মেসির ভবিষ্যৎ নিয়ে নাটক এখানেই শেষ নয়।

মেসি নিজের ঘনিষ্ঠমহলে আবার জানিয়েছেন তিনি বার্সা কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করতে চান। যে বৈঠকে মেসি বলবেন তার ইচ্ছাকে যাতে শ্রদ্ধা করে আর্জেন্টাইন কিংবদন্তিকে ক্লাব ছাড়ার অনুমতি দেওয়া হয়। মেসি চান না তার বিরুদ্ধে কোর্টে মামলা করুক বার্সা। বরং তিনি আত্মবিশ্বাসী কোনও সমাধান সূত্র ঠিক বেরিয়ে আসবে।

কিন্তু বার্সার তরফ থেকেও মেসিকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, এক বছর পরে চুক্তি শেষ হলেই মেসি ফ্রি এজেন্ট হিসাবে ক্লাব ছাড়তে পারবেন। এ মৌশুমে মেসিকে বিক্রি করবে না বার্সেলোনা। আর যদি মেসি তাতেও ক্লাব ছাড়তে চান ক্লাব তাহলে ম্যান সিটি বা পিএসজিকে দিতে হবে আর্জেন্টাইন মহাতারকার গোটা বাইআউট ক্লজটা। যা হল প্রায় ৭০০ মিলিয়ন ইউরো।

Berger Weather Coat