।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

রাজশাহীতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাইটেক পার্কে উদ্যোক্তাদের মধ্যে জায়গা বরাদ্দ শুরু হয়েছে। শুক্রবার (১৪ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১০টায় এই হাইটেক পার্কের শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেশন অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টারে আনুষ্ঠানিকভাবে আটটি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের কাছে জায়গার বরাদ্দপত্র হস্তান্তর করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন। অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ।

সিটি করপোরেশন সূত্র জানায়, গত ১২ ফেব্রুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেশন অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টারের উদ্বোধন করেন। প্রায় ৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে ৭২ হাজার বর্গফুটবিশিষ্ট এই ভবনে তারুণ উদ্যোক্তাদের জন্য বিনা মূল্যে জায়গা রাখা হয়েছে। ২০১৭ সালের ১৮ জুলাই এই ইনকিউবেশন ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের তিন বছরের মধ্যে শুক্রবার আনুষ্ঠানিকভাবে আটটি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে বরাদ্দপত্র দেওয়া হলো।

অনুষ্ঠানের মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহীতে হাইটেক পার্ক অত্যন্ত প্রয়োজন ছিল। প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী এটি বাস্তবায়িত হচ্ছে। শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেশন অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টার থেকে ট্রেনিং নিয়ে তরুণ-তরুণীরা নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারবে, এখানে অনেক মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। এখন থেকে আর চাকরির পেছনে ছুটতে হবে না, নিজেরাই উদ্যোক্তা হয়ে মানুষকে চাকরি দিতে পারবে তরুণ–তরুণীরা।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট, রাজশাহী মেডিকেল, রাজশাহী কলেজসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে লক্ষাধিক শিক্ষার্থী রয়েছে। তাদের কথা বিবেচনা করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই অঞ্চলের জন্য একটি হাইটেক পার্ক প্রতিষ্ঠার কথা বলেছিলেন। গত ফেব্রুয়ারি মাসে তিনি শেখ কামাল আইটি ইনকিউবেটর অ্যান্ড ট্রেনিং সেন্টারের উদ্বোধন করে রাজশাহীবাসীর স্বপ্ন অনেকটাই পূরণ করেছেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী-৩ আসনের সাংসদ আয়েন উদ্দিন ও সংরক্ষিত মহিলা আসনের সাংসদ আদিবা আনজুম। জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। এতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাইটেক পার্ক প্রকল্পের পরিচালক এ কে এম ফজলুল হকসহ সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

রাজশাহী সিটি করপোরেশন সূত্র জানায়, ২০১৭ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব হাইটেক পার্কের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। পদ্মাপাড়ে মনোরম পরিবেশে ৩১ একর জমির ওপর প্রায় ২৮৮ কোটি টাকা ব্যয়ে এই হাইটেক পার্ক গড়ে তোলা হয়েছে। নির্মাণকাজ পুরোপুরি শেষ হলে এখানে প্রায় ১৪ হাজার তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।