পড়তে পারবেন < 1 মিনিটে Berger Weather Coat

।। অ্যালা এলাসার, সিএনএন ।।

রোববার প্রকাশিত নতুন গবেষণায় দেখা গেছে, রেকর্ড সংখ্যক মানুষ তাদের মার্কিন নাগরিকত্ব ত্যাগ করছেন।

নিউইয়র্কভিত্তিক সংস্থা বামব্রিজ অ্যাকাউন্ট্যান্টসের ওই গবেষণা মতে, ২০১৯ সালের পুরো বছরে ২,০৭২ জন মার্কিন নাগরিকত্ব ছেড়েছেন। সেখানে ২০২০ সালের প্রথম ছয় মাসে ৫,৮০০-এরও বেশি মার্কিন নাগরিকত্ব ত্যাগ করেছেন।

সংস্থাটি বলেছে যে, যারা মার্কিন নাগরিকত্ব ছেড়ে দেয়, দেশটির সরকার প্রতি তিন মাস পর পর তাঁদের তালিকা প্রকাশ করে। এই তালিকার ওপর ভিত্তি করে বামব্রিজ অ্যাকাউন্ট্যান্ট গবেষণাটি করেছে।

বামব্রিজ অ্যাকাউন্ট্যান্টসের অংশীদার অ্যালিস্টায়ার বামব্রিজ সিএনএনকে বলেছেন, “এগুলি মূলত এমন লোক যারা ইতিমধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ছেড়ে গিয়েছে এবং তারা মনে করে যে তারা যথেষ্ট ভালো আছে।”

তিনি আরও বলেন, “আমরা যা দেখেছি তা হলো জনগণ প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নিয়ে যা কিছু হচ্ছে, তা ভালোভাবে নেয়নি। করোনভাইরাস মহামারী কীভাবে পরিচালিত হচ্ছে এবং এই মুহূর্তে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক পরিস্থিতিও সেক্ষেত্রে বিবেচ্য হচ্ছে।”

প্রতিবেদনে বলা হয়, করোনাভাইরাসের কারণে বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রাপ্ত বয়স্কদের মধ্যে প্রতি পাঁচজনে একজন মানুষ মার্কিন মুলুক ছেড়ে দিচ্ছেন। যারা ইতিমধ্যে মার্কিন নাগরিকত্ব ছেড়ে দিয়েছেন তাঁদের অভিযোগ, আমেরিকার রাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণে তাঁরা অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিলেন। এ ছাড়া আমেরিকার ট্যাক্স ব্যবস্থাও তাঁদের নাগরিকত্ব ছেড়ে দেওয়ার আরেকটি বড় কারণ।

অ্যালিস্টায়ার বামব্রিজ আরও বলেন, বিদেশে অবস্থানরত মার্কিন নাগরিকদের এখনো প্রতি বছর ট্যাক্স রিটার্ন জমা দিতে হয়। তাঁদের বিদেশি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, বিনিয়োগ ও পেনশনের যাবতীয় তথ্য জানাতে হয়। তিনি বলেন, যারা (অন্য দেশের নাগরিক) মার্কিন নাগরিকত্ব ছেড়ে দিতে চান, তাঁদের বাধ্যতামূলক দুই হাজার ৩৫০ ডলার দিতে হবে এবং তাঁদের নিজ দেশের মার্কিন দূতাবাসে হাজির হয়ে জানাতে হবে।

ঝুঁকি থাকা সত্ত্বেও মানুষ মার্কিন নাগরিকত্ব ছাড়ছে। আর এই ছাড়ার হার ক্রমশ বাড়তে থাকবে বলে মনে করে বামব্রিজ অ্যাকাউন্ট্যান্ট।

অ্যালিস্টেয়ার বামব্রিজ বলেন, ‘অসংখ্য মানুষ নভেম্বরে অনুষ্ঠেয় মার্কিন নির্বাচনে কী ঘটবে, তার অপেক্ষায় আছে। যদি ডোনাল্ড ট্রাম্প আবার নির্বাচিত হন, তাহলে আমাদের বিশ্বাস তখন অসংখ্য মানুষ তাঁদের মার্কিন নাগরিকত্ব ছেড়ে দেওয়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন।’