পড়তে পারবেন < 1 মিনিটে Samsungtv

।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

সাত বছরের এক শিশু পাঁচ টাকা চেয়ে না পাওয়ায় হাতে থাকা হাসুয়া (নিত্যদ্রব্য কাটার কাজে ব্যবহৃত ধারালো অস্ত্র) দিয়ে কোপ মারে মায়ের বুকে। পরে হাসপাতালে নেয়ার পর চিকিৎসকরা সেই মাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাটি সোমবার সকালে রাজশাহীর পবা উপজেলার বেড়পাড়া গ্রামের।

নিহত নারী ফাতেমা-তুজ-জোহরার বিয়ে পবার বেড়পাড়ায় হলেও তার বাবার বাড়ি জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার বিদিরপুর গ্রামে।

রাজশাহীর দামকুড়া থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম জানান, হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনার পর শিশুটির পিতা জানান, তার সাত বছর বয়সী ছোট শিশু হাসুয়া হাতে খেলছিল। এ সময় পাঁচ টাকার বায়না করে। কিন্তু না দিতে চাওয়ায় সে হঠাৎ করে মায়ের বুকে হাসুয়া দিয়ে কোপ দেয়। পরে মায়ের বুকে রক্ত দেখে আতঙ্কিত শিশু পালিয়ে যায়। ওই নারীকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রামেক হাসপাতালে নিলে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন।

ওসি আরও জানান, পুলিশ গিয়ে আতঙ্কিত শিশুটিকে নিয়ে আসে। ঘটনার পর পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) সদস্যদের আসার জন্য খবর দেওয়া হয়েছে। ওই শিশু বুঝতে না পেরে এমন ঘটনা ঘটিয়ে ফেলেছে। এখন পরিবারের সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নিহতের মরদেহ রামেক হাসপাতালের হিমঘরে রাখা আছে। ময়নাতদন্তের পর মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হবে বল জানান দামকুড়া থানার ওসি।

Berger Weather Coat