।। বাংলা ট্রিবিউন, ঢাকা ।।

করোনা দুর্যোগের প্রভাব দীর্ঘমেয়াদি হবে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ অবস্থায় পরিস্থিতি মোকাবিলায় জাতীয় টাস্কফোর্স গঠনের দাবি জানান তিনি। তিনি বলেন, করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলার লক্ষ্যে সুসমন্বিত ও সুবিবেচিত কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ, ত্রাণবিতরণ, বিভিন্ন সেক্টরে প্রণোদনা ও ঋণ প্যাকেজ বণ্টনসহ সার্বিক অবস্থায় সরকারকে পরামর্শ দেয়ার জন্য একটি জাতীয় টাস্কফোর্স গঠনের প্রস্তাব করছি।

শুক্রবার (১৭ এপ্রিল) গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ দাবি জানান।

মির্জা ফখরুল বলেন, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধি, সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, বিশিষ্ট সাংবাদিক, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক, অর্থনীতিবিদ, সমাজবিজ্ঞানী, সশস্ত্র বাহিনী ও অন্যান্য বাহিনীর প্রতিনিধিদের অন্তর্ভুক্ত করে টাস্কফোর্সকে অর্থবহ ও গতিশীল করার মাধ্যমে কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়া এখন সময়ের দাবি। আল্লাহর রহমত এবং আমাদের সবার সমন্বিত প্রচেষ্টায় এ মহাদুর্যোগ কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হবো।

করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষিত ৯৫ হাজার ৬৯১ কোটির টাকার অর্থনৈতিক প্যাকেজকে শুভঙ্করের ফাঁকি বলে দাবি করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, এই প্যাকেজে সরকারের প্রণোদনা, ব্যাংক ঋণ বাবদ সরকারি ভর্তুকি প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা। সরকারি কোষাগার থেকে (বিশেষ বরাদ্দ) অর্থনৈতিক প্যাকেজ প্রণোদনা ১ হাজার ৬১০ কোটি। মোট ৪ হাজার ৬১০ কোটি টাকা যা জিডিপির ০.১৬ শতাংশেরও কম।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা মনে করি করোনা ভাইরাসের প্রভাব মোকাবিলায় সরকারি কোষাগার থেকে অর্থ যোগান দিয়ে একটি বিশেষ তহবিল গঠন করতে হবে। যেন অন্যান্য খাতের কর্মকাণ্ড বিঘ্নিত না হয়।