।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

রাজশাহীতে প্রাইভেট কার গাছের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে দুমড়ে-মুচড়ে ছয়জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও দুইজন।

গোদাগাড়ী থানার ওসি খাইরুল ইসলাম জানান, শনিবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে উপেজলার কাদিরপুরে রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতদের মধ্যে তিনজনের নাম পাওয়া গেছে।

তারা হলেন গোদাগাড়ীর কেল্লাবারইপাড়া এলাকার রমজান আলীর স্ত্রী আছিয়া বেগম (৩৫), রাজশাহীর মুনাফের মোড় এলাকার ফজলুর রহমানের ছেলে আক্কাস আলী (৪০) ও মেহেরচণ্ডী এলাকার মতিউর রহমানের ছেলে প্রাইভেট কারের চালক মাহবুবুর রহমান (৩৫)।

নিহত অন্য তিনজনের মধ্যে রয়েছেন এক তরুণী ও দুই শিশু। তরুণীর বয়স ২০ থেকে ২২ বছরের মধ্যে হতে পারে আর শিশুদের বয়স ১০ বছর ও  এক বছর হতে পারে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

গোদাগাড়ী থানার ওসি খাইরুল ইসলাম বলেন, রাজশাহী থেকে প্রাইভেট কারটি গোদাগাড়ীর দিকে যাচ্ছিল। কাদিরপুরে কারটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা খায়। গাড়িটি দুমড়ে-মুচড়ে গেলে ঘটনাস্থলেই তিনজন নিহত হন।

এ সময় শিশুসহ চারজন আহত হলে তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে আরও তিনজন মারা যান বলে বলে হাসপাতালের উপ-পরিচালক সাইফুল ফেরদৌস জানিয়েছেন।

ওসি খাইরুল বলেন, স্থানীয় লোকজন ও ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা গিয়ে আহত চারজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম-ধাম বলতে পারেনি।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের গোদাগাড়ী স্টেশন কর্মকর্তা আতাউর রহমান জানান, দুর্ঘটনার পরপরই তারা ঘটনাস্থলে গিয়েছেন। প্রাইভেট কারের ভেতর থেকে তিনজনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশে দিয়েছেন।

হাসপাতালের উপ-পরিচালক সাইফুল ফেরদৌস বলেন, দুর্ঘটনার পর আহত পাঁচজনকে তাদের হাসপাতালে আনা হয়। তাদের মধ্যে দুই শিশু ও একজন নারী মারা যান। অন্য দুইজনকে ভর্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তাদের অবস্থাও আশঙ্কাজনক।