।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

দেশের চার জেলার সোমবার রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত সড়ক দুর্ঘটনায় নারী ও কিশোরসহ মোট ৫ জন নিহত হয়েছেন। সংশ্লিষ্ট এলাকার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

শেরপুর প্রতিনিধি জানান, মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) ভোরে শেরপুর সদর উপজেলার তারাকান্দি বাজারের কাছে গাড়িচাপায় নারীসহ দুজন নিহত হয়েছেন। তারা হলেন- উপজেলার তারাকান্দি শিমুলতলী এলাকার আবদুল গফুর শেখের ছেলে জাফর শেখ (৫৫) ও একই এলাকার শহিদুলের স্ত্রী খুকি বেগম (৪০)।

শেরপুর সদর থানার এসআই রুবেল মিয়া বলেন, ‘ভোর ৫টার দিকে অজ্ঞাত গাড়িচাপায় ওই দুজন ঘটনাস্থলেই নিহত হন। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শেরপুর জেলা হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

স্থানীয়দের বরাতে সাতক্ষীরা প্রতিনিধি জানান, সকালে জেলার পাটকেলঘাটায় হানিফ পরিবহনের ধাক্কায় পান ব্যাবসায়ী শেখ আব্দুস সাত্তার (৩৫) নিহত হয়েছেন। বাইসাইকেলে করে পান বিক্রি করতে যাওয়ার পথে কুমিরা বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছালে সাতক্ষীরাগামী হানিফ পরিবহনের একটি বাস তাকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেইর তার মৃত্যু হয়।

পাটকেলঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী ওয়াহিদ মোরশেদ বলেন, ‘পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করেছে।’

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি জানান, চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা-কুষ্টিয়া মহাসড়কের জগন্নাথপুর ব্রিজের কাছে লাটাহাম্বারের (শ্যালো ইঞ্জিন চালিত যানবাহন) চাপায় সবজি ব্যবসায়ী সিরাজুল ইসলাম (৬০) নিহত হয়েছেন। এসময় ইমরান ও আজহার আলী আহত হন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, সোমবার দিবাগত রাতে সিরাজুল ইসলাম, ইমরান ও আজহার আলী আলমডাঙ্গা উপজেলা শহর থেকে বাড়িতে ফেরার পথে জগন্নাথপুর ব্রিজের কাছে ট্রাককে পাশ কাটাতে গেলে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার ওপরে পড়ে যায়। এসময় একটি দ্রুতগামী লাটাহাম্বার তাদের চাপা দেয়। তাদের উদ্ধার করে আলমডাঙ্গা ফাতেমা ক্লিনিকে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সিরাজুল ইসলামকে মৃত ঘোষণা করেন। আলমডাঙ্গা থানার ওসি আশিকুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এছাড়াও নীলফামারী প্রতিনিধি জানিয়েছেন, নীলফামারীর ডিমলায় মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে মাসুদ (১৬) নামের এক কিশোরের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) ডিমলা থানার ওসি মফিজ উদ্দিন শেখ এই তথ্য নিশ্চিত করেন।