।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ।।

পুকুরের পানিতে ডুবে যাওয়া মোবাইল ফোন তুলতে গিয়ে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মহিউদ্দিন তাজ (২৩) মারা গেছেন। তিনি ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চতুর্থ সেমিস্টারে পড়তেন এবং জিয়াউর রহমান হলের ৪১৮ নম্বর কক্ষের আবাসিক শিক্ষার্থী ছিলেন।

বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রুয়েট ক্যাম্পাসের অভ্যন্তরীণ একটি পুকুরে এই দুর্ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন ওই বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ফারুক হোসাইন।

তিনি বলেন, দুপুরে বন্ধুদের সঙ্গে সেলফি তুলতে গিয়ে তাজের মোবাইল ফোনটি পুকুরের পানিতে পড়ে যায়। ফোনটি তুলতে গিয়ে পানিতে ডুবে গেলে উপস্থিত শিক্ষার্থীরা তাকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে ১টা ৫ মিনিটে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। লাশ রামেক মর্গে রাখা হয়েছে।

মৃত তাজ নওগাঁ জেলার পত্নিতলার কয়ড়া এলাকার এনামুল হকের ছেলে। তবে তার পরিবার ঢাকায় থাকে। তাজের বাবা-মা ঢাকা থেকে রওনা দিয়েছেন। তারা আসার পর যে সিদ্ধান্ত দিবেন সে অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান অধ্যাপক ফারুক।

রুয়েট ছাত্রকল্যাণ পরিচালক ড. রবিউল ইসলাম বলেন, আজকে সরস্বতী পূজার ছুটি চলছে। শিক্ষার্থীরা নিজেদের মত ঘোরাফেরা করছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছে, সেলফি তুলতে গিয়ে পুকুরে পানিতে পড়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।