।। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি, রাসিক ।।

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেছেন, বাংলাদেশের প্রায় ৭০ লাখ মানুষ বিভিন্ন দেশে কর্মরত। দেশের বাইরে থেকে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিটেন্স আমাদের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে। সরকার দক্ষ জনশক্তি গড়তে প্রশিক্ষণের নানা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। দক্ষ দিয়ে বিদেশ গেলে অদক্ষ কর্মীর চেয়ে দুই থেকে তিনগুণ বেশি বেতন পাওয়া যায়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের জনশক্তিকে সম্পদে পরিণত করতে চান। সে লক্ষ্যে কাজ করছে সরকার।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজশাহী কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের (টিটিসি) ২০২০ সালের নবাগত শিক্ষার্থী বরণ ও এসএসসি (ভোক) পরীক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন মেয়র। টিটিসি মাঠে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বর্তমান সরকারের পাশে থাকার আহ্বান জানিয়ে মেয়র আরো বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার ধারাবাহিকভাবে ক্ষমতায় আছে বলেই দেশের উন্নয়ন হচ্ছে। আমরা নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু করছি, মানুষের মাথাপিছু আয় বেড়েছে, দেশের বাজেটের আকার বেড়েছে, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বৃদ্ধি পেয়েছে। সরকার ১০টি মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। নারীরাও সর্বক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছেন। দেশের উন্নয়নের স্বার্থে আগামীতেও এই সরকারের পাশে থাকতে হবে, সরকারকে সময় দিতে হবে। 

চলতি বছরের মধ্যেই রাজশাহীর দৃশ্যমান পরিবর্তন হবে উল্লেখ করে মেয়র লিটন বলেন, রাজশাহীর সার্বিক উন্নয়নে দুই হাজার ৯৩১ কোটি টাকার একটি প্রকল্প মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক একনেকে অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। এই প্রকল্পটি পাশ হলে নগরের ব্যাপক উন্নয়ন হবে। এছাড়া এই বছরের মধ্যে রাজশাহীর দৃশ্যমান পরিবর্তন হবে।

রাজশাহী কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ প্রকৌ. মো. আবদুর রহিমের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহীর জেলা প্রশাসক মো. হামিদুল হক, রাজশাহীর পুলিশ সুপার, মো. শহিদুল্লাহ, রাজশাহীর শাহ্ মখদুম জোন এর উপ-পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ তারিকুল ইসলাম, রাজশাহী নিউজ ২৪ এর চেয়ারম্যান ডাঃ মোঃ আব্দুল খালেক বিশ^াস, কোইকার প্রজেক্ট ম্যানেজার কিম ইয়ং উক, রাজশাহী টিটিসির উপাধ্যক্ষ আক্তারা শাহিন।