।। আউটলুক/আইএএনএস, ইসলামাবাদ ।।

দক্ষিণ এশিয়ায় যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ কূটনীতিক অ্যালিস ওয়েলস বলেছেন যে পাকিস্তানকে সহায়তা করতে তার দেশ প্রস্তুত। ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্সের (এফএটিএফ) বাধ্যবাধকতাগুলো পূরণে পাকিস্তান চেষ্টা করছে বলে জানান তিনি।

শনিবার ওয়াশিংটনে ওয়েলস বলেন, এফএটিএফের বাধ্যবাধকতাগুলো পূরণের ক্ষেত্রে পাকিস্তানের অগ্রতিতে আমরা সন্তুষ্ট। তিনি তার সাম্প্রতিক পাকিস্তান, ভারত ও শ্রীলঙ্কা সফর সম্পর্কে সাংবাদিকদের অবহিত করেন। 

এফএটিএফের গ্রে লিস্ট থেকে পাকিস্তানকে বাদ দেয়ার ব্যাপারে সাহায্য করতে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি সাহায্যের যে আহ্বান জানিয়েছেন সে বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে ওয়েলস বলেন, এফএটিএফ হলো একটি কারিগরি প্রক্রিয়া এবং ইসলামাবাদকে একটি কর্মপরিকল্পনা দেয়া হয়েছে।

তিন আরো বলেন, প্রশ্ন হলো শর্তগুলো পূরণ করা হয়েছে কিনা। আন্তর্জাতিক ব্যবস্থায় সব দেশকেই এটা বলা হয়েছে। এটা কোন রাজনৈতিক প্রক্রিয়া নয়। তবে এসব বাধ্যবাধকতা পূরণে পাকিস্তানকে সমর্থন দিতে ও সহায়তা করতে আমরা প্রস্তুত।

চলতি সপ্তাহে বেইজিংয়ে এশিয়া-প্যাসিফিক জয়েন্ট গ্রুপের বৈঠকে পর্যালোচনার পর বলা হয়  কর্মপরিকল্পনার ২২টি শর্ত পূরণ করেছে পাকিস্তান। আগামী মাসে এফএটিএফের পূর্ণাঙ্গ অধিবেশন বসবে। সেখানে গ্রে লিস্ট থেকে পাকিস্তানের নাম বাদ দেয়া নিয়ে আলোচনা হবে। এই নাম বাদ দেয়ার জন্য ইসলামাবাদ যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা চেয়েছে।

২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে পাকিস্তানে মানিল্ডারিং ও সন্ত্রাসী অর্থায়নের ক্ষেত্রে গুরুতর সমস্যা দেখতে পায় এফএটিএফ। তখন পাকিস্তানকে গ্রে তালিকাভুক্ত করে তা থেকে মুক্তি পেতে ২৭ দফা কর্মপরিকল্পনা বেধে দেয় প্রতিষ্ঠানটি।