।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

চারদিনের টেস্টের বিরুদ্ধে অবস্থান ক্রিকেটের আইনের রক্ষক বলে পরিচিতি মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাবেরও (এমসিসি)। ঐতিহ্যবাহী আদি এই সংস্থাটির চাওয়া- টেস্ট থাকুক পাঁচ দিনেরই।

বিশ্বব্যাপী ঠাসা আন্তর্জাতিক সূচি ও ক্রিকেটারদের ওপর থেকে চাপ কমাতে টেস্টকে পাঁচদিন থেকে চারদিনে নামিয়ে আনতে আগ্রহী আইসিসি। এমনটি চাউর হওয়ার পর থেকে এর বিরুদ্ধে কথা বলেছেন অনেকেই। ক্রিকেটের চেতনার ধারক ও বাহক এমসিসি জানিয়েছে সাম্প্রতিক এই আলোচনা তাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে, ‘টেস্ট ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ ও বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে পাঁচদিনের টেস্টকে চারদিনে রূপ দিতে আইসিসির সাম্প্রতিক আলোচনা এমসিসির দৃষ্টিগোচর হয়েছে।’

চারদিনের টেস্ট বাধ্যতামূলক করলে প্রতি বছরে বেঁচে যাবে ৪০ দিন। সুতরাং ব্যস্ত সূচি থেকে কিছুটা পরিত্রাণ পাবেন ক্রিকেটাররা। এসব সুবিধার বিষয়টি ভেবে দেখেছে এমসিসিও। তবে তারা পাঁচ দিনের টেস্টের পক্ষে থাকার ব্যাপারে অনড়, ‘এমসিসির ক্রিকেট কমিটি ও ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট কমিটি সম্প্রতি এ নিয়ে আলোচনা করেছে। তারা দেখেছে এর ফলে কিছু সুবিধা হবে, কিন্তু দুই কমিটিই বিশ্বাস করে টেস্ট ক্রিকেট ৫ দিন ধরেই খেলা উচিত।’

আইসিসির এই পরিকল্পনায় মিশ্র প্রতিক্রিয়া পাওয়া যাচ্ছে বেশ কিছুদিন ধরে। ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি, ইংলিশ অধিনায়ক জো রুট ও দক্ষিণ আফ্রিকা অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসি এই পরিকল্পনার বিরুদ্ধে কথা বলেছেন।

তবে চারদিনের টেস্ট এরই মধ্যে আইসিসির কল্যাণে আলোর মুখ দেখেছে। ২০১৭ সালে জিম্বাবুয়েকে সঙ্গে নিয়ে চারদিনের টেস্ট খেলেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। আয়ারল্যান্ডের সঙ্গে একটি চারদিনের টেস্ট খেলেছ ইংল্যান্ডও।