।। শোবিজ প্রতিবেদন ।।

চলচ্চিত্র দুনিয়ার সবচেয়ে সম্মানজনক পুরস্কার অস্কারের গত আসরের পুনরাবৃত্তি হচ্ছে এবারও। ৯২তম অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডস অনুষ্ঠানেও থাকবে না কোনও উপস্থাপক।

হলিউডের ডলবি থিয়েটারে অস্কারের জমকালো আসর বসবে আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি। এবিসি টেলিভিশন নেটওয়ার্কের মাধ্যমে বিশ্বের ২২৫টিরও বেশি দেশে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে এই আয়োজন।

এবিসি টেলিভিশন এন্টারটেইনমেন্টের সভাপতি ক্যারি বার্ক বুধবার (৮ জানুয়ারি) বলেছেন, ‘অ্যাকাডেমি অব মোশন পিকচার্স আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেস কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, আবারও উপস্থাপক ছাড়াই অস্কার অনুষ্ঠান হবে।’

অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের ইতিহাসে ৩০ বছর পর ২০১৯ সালে উপস্থাপক ছাড়াই প্রথম অস্কার অনুষ্ঠান হয়েছে। তবে তাতে দর্শক কমেনি, বরং বেড়েছে। ২০১৫ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত টানা চার বছর আমেরিকান দর্শকসংখ্যার পতন হলেও গতবার তা বেড়ে দাঁড়ায় ২ কোটি ৯৬ লাখে। সমালোচকরাও অনুষ্ঠানের প্রশংসা করেন।

গতবার ‘বোহেমিয়ান র‌্যাপসোডি’র বক্স অফিস সাফল্য উদযাপন করতে রক ব্যান্ড কুইনের সংগীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু হয় অস্কারের জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠান।

গত বছর সুফল পাওয়ায় এবারও অস্কারে উপস্থাপক না রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান এবিসি টেলিভিশন এন্টারটেইনমেন্টের সভাপতি। তিনি বলেন, ‘গতবার যেসব পন্থা কাজে লেগেছে তারই পুনরাবৃত্তি ঘটানোর পরিকল্পনা চলছে। এর মধ্যে থাকছে ব্যাপক বিনোদন, বিখ্যাত সংগীতশিল্পীদের পরিবেশনা ও হাস্যরসধর্মী উপাদান। ইতোমধ্যে দারুণ কিছু ভাবনা সাজিয়েছি আমরা। মনে হচ্ছে, আবারও অসাধারণ বিনোদনমূলক একটি অনুষ্ঠান উপহার দিতে পারবো।’

এবারের অস্কারের মনোনয়ন তালিকা ঘোষণা করা হবে আগামী ১৩ জানুয়ারি।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে অস্কার অনুষ্ঠানের জন্য জুতসই উপস্থাপক পাওয়া কঠিন হয়ে পড়েছে। গত বছর কমেডিয়ান কেভিন হার্টকে দায়িত্ব দেওয়া হলেও অতীতের একটি মন্তব্যকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট বিতর্কে তিনি সরে যান। এরপর উপস্থাপক ছাড়াই বিভিন্ন পরিবেশনার ফাঁকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।