।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

কাসেম সোলেমানি হত্যার জেরে ইরান-যুক্তরাষ্ট্র দ্বন্দ্ব চরমে পৌঁছেছে। আগে থেকেই ইরানের ওপর বিভিন্ন অবরোধ-নিষেধাজ্ঞা তো ছিলই, এবার দেশটিকে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকেও যোগ দিতে দিচ্ছে না ট্রাম্প প্রশাসন।

আগামী বৃহস্পতিবার নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিতব্য জাতিসংঘের নিরাপত্তার পরিষদের বৈঠকে যোগ দেওয়ার জন্য ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের ভিসা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে মার্কিন প্রশাসন। মঙ্গলবার (৭ জানুয়ারি) এক জ্যেষ্ঠ মার্কিন কর্মকর্তার বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে সৌদি সংবাদমাধ্যম আরব নিউজ।

১৯৪৭ সালের জাতিসংঘ চুক্তি অনুসারে সংস্থাটির সব সদস্য দেশের কূটনীতিকদের প্রবেশধিকার দিতে বাধ্য যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু ওয়াশিংটন বলছে, দেশের নিরাপত্তা, সন্ত্রাসবাদ ও পররাষ্ট্রনীতির কারণে যে কারও ভিসা বাতিলের অধিকার রয়েছে তাদের। এ বিষয়ে এখনো আনুষ্ঠানিক কোনো মন্তব্য করেনি যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্ট।

গত বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারি) দিনগত রাতে ইরাকের বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হন ইরানের বিশেষ কুদস ফোর্সের কমান্ডার মেজর জেনারেল কাসেম সোলেমানি। ইরান এ হামলার কঠিন প্রতিশোধ নেওয়ার প্রতিজ্ঞা করেছে। অন্যদিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হুমকি দিয়েছেন, ইরান হামলার চেষ্টা করলে মার্কিন বাহিনীর হাতে থাকা অত্যাধুনিক অস্ত্র দিয়ে ইরানের ৫২টি লক্ষ্যবস্তুতে দ্রুত ও কঠোর হামলা করা হবে।