।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

ভারতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) বিরুদ্ধে বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। আটক করা হয়েছে শতাধিক বিক্ষোভকারীকে। দিল্লির বেশ কিছু এলাকায় ১৪৪ ধারা জারি ও ইন্টারনেট সেবা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, বিক্ষোভের মুখে যানজটে কার্যত অচল হয়ে পড়েছে দেশটির রাজধানী শহর দিল্লি। আন্দোলন দমাতে মোড়ে মোড়ে ব্যারিকেড বসিয়েছে কর্তৃপক্ষ। সবচেয়ে খারাপ অবস্থা দিল্লি-গুরগাও এলাকায়।

সেন্ট্রাল দিল্লির লালকেল্লা এলাকায় লোক জমায়েত নিষিদ্ধ করে ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন। সেখানে হাজির হওয়া অসংখ্য বিক্ষোভকারীকে আটক করেছে পুলিশ।

বিক্ষোভের কারণে শহরের ১৮টি স্টেশন বন্ধ ঘোষণা করেছে দিল্লি মেট্রো।

দিল্লিতে বিক্ষোভের সময় আটক হয়েছেন স্বরাজ অভিযানের সভাপতি যোগেন্দ্র যাদব, বামপন্থি নেতা সীতারাম ইয়েচুরী, ডি. রাজা; মান্দি থেকে আটক হয়েছেন সিপিআইএম নেতা বৃন্দা করত ও কংগ্রেস নেতা সন্দীপ দিক্ষিত।

নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভের সময় ব্যাঙ্গালুরু থেকে আটক হয়েছেন ভারতের প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ রমাচন্দ্র গুহ। টুইটারে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এছাড়া, কলকাতা ও হাওড়ায় বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশ ও র‌্যালি করেছেন তিনি।

বিক্ষোভকালে হায়দ্রাবাদ থেকে আটক করা হয়েছে অর্ধ শতাধিক মানুষকে। এদিন উত্তর প্রদেশের সম্ভার এলাকায় একটি সরকারি বাসে আগুন দিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা।

এছাড়া, দেশটির অন্তত ১০টি শহরে নাগরিকত্ব আইন সংশোধনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করার অনুমতি দেয়নি প্রশাসন।