Loading...
উত্তরকাল > বিস্তারিত > শিরোনাম > কাউন্সিলর চূড়ান্ত, নেতৃত্ব নির্বাচনের আশায় রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ

কাউন্সিলর চূড়ান্ত, নেতৃত্ব নির্বাচনের আশায় রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ

পড়তে পারবেন 2 মিনিটে

।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

নানা নাটকীয়তার পর অবশেষে ৮ ডিসেম্বর সম্মেলনের প্রস্তুতি পুরোপুরি গুছিয়ে এনেছে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ। এদিন রাজশাহী বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

গঠনতন্ত্র অনুযায়ী এই সম্মেলনেই নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করার কথা কাউন্সিলরদের। সে লক্ষ্যে এরই মধ্যে ৩৬০ জন কাউন্সিলরও চূড়ান্ত করা হয়েছে।

৫ বছর পর অনুষ্ঠেয় এই সম্মেলনকে ঘিরে রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীদের মধ্যে জেগেছে প্রাণচাঞ্চল্য। এবারের সম্মেলনের প্রস্তুতিতে স্থানীয় সংসদ সদস্যদেরও দেখা যাচ্ছে উদ্যোগী ভূমিকায়।

দলটির স্থানীয় জ্যেষ্ঠ নেতারা জানিয়েছেন, কমিটি গঠনে দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তাদের কাছে। আর সেক্ষেত্রে গঠনতন্ত্র অনুসারে গণতান্ত্রিক উপায়েই নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনের ব্যাপারে তারা আশাবাদী।

সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক জ্যেষ্ঠ নেতা মেরাজ উদ্দিন মোল্লা বলেন, ‘গঠনতন্ত্র অনুসারে গণতান্ত্রিক উপায়ে কাউন্সিলরদের ভোটে নেতৃত্ব নির্বাচিত হলেই সেই নেতৃত্ব আগামীতে সবচেয়ে ভালোভাবে সংগঠন চালাতে পারবে।’

তিনি জানান, এ কারণেই কাউন্সিলর নির্বাচনে নিয়ম অনুসরণ ও সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে, যাতে একটি স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় নেতৃত্ব নির্বাচন করা সম্ভব হয়।

জেলার বেশিরভাগ দলীয় সংসদ সদস্য মনে করেন, জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান পরিস্থিতিতে যে নেতৃত্বের ওপর তৃণমূলের আস্থা থাকবে, তারাই সংগঠন পরিচালনায় আগামীতে সফল হতে পারবেন।

রাজশাহী-৫ আসনের সংসদ সদস্য ডা. মনসুর রহমান বলেন, ‘আওয়ামী লীগ একটি গণতান্ত্রিক সংগঠন, যার নেতাকর্মীরা আন্দোলন-সংগ্রাম থেকে শুরু করে ভোটের মাঠে একসঙ্গে থাকে। গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় কাউন্সিলেও তারা একই থাকবে।’

রাজশাহী-৪ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক বলেন, ‘কিছু ব্যক্তিগত সমস্যার কারণে অতীতে এই সংগঠনে সমস্যা তৈরি হয়েছে। কিন্তু তাতে সংগঠনের পথচলায় কোনো সমস্যা হয়নি। সংগঠন আজ একটা ভালো অবস্থানেও এসেছে। আমার বিশ্বাস আগামীতে যে নেতৃত্বকেই তৃণমূল বেছে নিক না কেন, তাদের লক্ষ্য থাকবে, দলটাকে সুসংগঠিত রাখা।’

রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন মনে করেন, দলীয় সভানেত্রীর নির্দেশনাই এক্ষেত্রে প্রথম গুরুত্ব পাবে। তিনি বলেন, ‘সম্মেলনে কাউন্সিলররা নিজেদের মতামতের ভিত্তিতে নেতৃত্ব নির্বাচন করবেন, এটাই সবার প্রত্যাশা।’

রাজশাহী জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট লায়েব উদ্দিন লাভলুর মতে, কাউন্সিলরদের মতামত সম্মেলনেই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। সেক্ষেত্রে গণতান্ত্রিক উপায়ে নেতৃত্ব নির্বাচিত হলে নেতৃত্বের ‘সুস্থ’ প্রতিযোগিতা পরবর্তীতে ‘অসুস্থ্য’ হয়ে ওঠার সুযোগ পায় না। তিনি বলেন, ‘সারা রাজশাহী জেলায় নেতৃত্ব দেয়ার মতো নেতা হয়তো একশ জন আছেন। কিন্তু তারা সবাই জানেন নেতা হবেন আসলে দুজন। কাজেই তাদেরকে মেনে নিয়ে দলকে ঐক্যবদ্ধভাবে পরিচালনা করাই হবে সবার লক্ষ্য।’

সবশেষ আপডেট

উত্তরকাল

বিশ্বকে জানুন বাংলায়

All original content on these pages is fingerprinted and certified by Digiprove
%d bloggers like this: