।। এনডিটিভি, নয়াদিল্লি ।।

ভারতে তিন বাহিনীর প্রধান হিসেবে নতুন পদ চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ (সিডিএস) তৈরির ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বৃহস্পতিবার দেশটির ৭৩তম স্বাধীনতা দিবসে জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আদলে নতুন এই পদ সৃষ্টির ঘোষণা দেন তিনি।

লালকেল্লায় ৯৩ মিনিটের ভাষণে মোদি বলেন, ‘‘আমাদের বাহি‌নী দেশের গর্ব। বাহিনীর মধ্যে যোগাযোগ আরও তীক্ষ্ণ করতে আমি একটি বড় সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করতে চাই। ভারতে চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ পদ- সিডিএস গঠন করা হবে। এর ফলে বাহিনীগুলি আরও কার্যকরী হবে।”

চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ বা সিডিএস পদে আসীন হবেন একজন চারতারকা সামরিক কর্মকর্তা। সেনা, নৌ বা বিমান যেকোনও বাহিনী থেকেই এই কর্মকর্তাকে বেছে নেওয়া হবে। সিডিএস হবেন প্রধা‌নমন্ত্রী ও সেনাবাহিনীর মধ্যে প্রধান যোগসূত্র।

সিডিএসের প্রস্তাব প্রথম দেওয়া হয়েছিস ১৯৯৯ সালে কার্গিল যুদ্ধের সময়। কার্গিলের পাহাড়ে পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর অনুপ্রবেশের পরে এই যুদ্ধ শুরু হয়েছিল। যুদ্ধের শেষে প্রতিরক্ষা বাহিনীর মধ্যে কী ফাঁক রয়েছে তা পর্যালোচনা করে দেখতে একটি কমিটি গঠন করা হয়। তখনই এই পদটির প্রয়োজনীয়তার দিকটি উঠে আসে।

মোদি সরকারের প্রথম পর্যায়ে দু’বছরের জন্য প্রতিরক্ষা মন্ত্রীর পদে থাকা মনোহর পারির্কার এই বিষয়টির পক্ষে জোর দেন।

কার্গিল রিভিউ কমিটির রিপোর্ট খতিয়ে দেখেন তৎকালীন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের এক দল। সেই দলের নেতৃত্বে ছিলেন তৎকালীন উপ প্রধানমন্ত্রী এলকে আদবানি। তাঁরা সিডিএস পদটির জন্য সুপারিশ করেন। কিন্তু সেই সুপারিশ পরে আর এগোয়নি।

প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গেই এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানান প্রাক্তন আর্মি চিফ জেনারেল বেদপ্রকাশ মালিক। কার্গিল যুদ্ধের সময় তিনি আর্মি চিফ ছিলেন।

তিনি টুইট করে জানান, ‘‘ধন্যবাদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সিডিএস নিয়ে ঘোষণা করার ঐতিহাসিক ঘোষণার জন্য। এই পদক্ষেপের ফলে জাতীয় সুরক্ষা আরও কার্যকরী হবে এবং অর্থনৈতিক ভাবে লাভবান হবে। এর ফলে আরও ভাল যৌথ আক্রমণ এবং বহু-শৃঙ্খলা গঠন সম্ভব হবে।”