।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

চুয়াডাঙ্গায় মাদ্রাসা ছাত্র বলাৎকারের ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক হাফেজ মওলানা মুফতি আব্দুল মুমিনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে চুয়াডাঙ্গা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল কুষ্টিয়া মীরপুর উপজেলার আমলা সদরপুর গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

চুয়াডাঙ্গা জেলা গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক ওহিদুল ইসলাম জানান, ২০১৮ সালে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার আকুন্দবাড়িয়া কওমী মাদ্রাসার শিক্ষক ছিলেন মুফতি আব্দুল মুমিন। চাকরি করার সময় ওই বছরের ২৫ ফেব্রুয়ারি মাদ্রাসার ১ম শ্রেণীর এক ছাত্রকে বলাৎকার করেন ওই শিক্ষক। ঘটনাটি কাউকে জানালে ওই ছাত্রকে প্রাণনাশের হুমকিও দেওয়া হয়। তাই, প্রাণভয়ে ওই ছাত্র বিষয়টি গোপন রাখে।

কিন্তু গত ২৪ জুলাই, চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় বলাৎকারের ঘটনা ধামাচাপা দিতে নুরানী হাফিজিয়া মাদ্রাসার ছাত্র আবির হুসাইনকে মাথাকেটে হত্যার পর পরিবারের সদস্যদের কাছে মুখ খোলে নির্যাতিত ওই ছাত্র। এরপর, ওই ছাত্রের চাচা গত সোমবার চুয়াডাঙ্গা সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। পরে ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের পর অভিযুক্ত শিক্ষক অভিযোগ শিকার করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।