।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ কুশিয়ারা ডাইক ভেঙে নবীগঞ্জ উপজেলার ৫০ গ্রাম তলিয়ে গেছে। বিশেষ করে হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ, বাহুবল, বানিয়াচং ও আজমিরীগঞ্জ উপজেলার ভাটি এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। পানিবন্দি এসব মানুষ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাঁধ মেরামতের চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে বন্যার পানি বৃদ্ধি থাকায় এ বাঁধ এখনই মেরামত করা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন।

স্থানীয় দীঘলবাক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু সাইদ এওলা বলেন, রোববার বিকালে হঠাৎ বিকট শব্দে নদী রক্ষা বাঁধ প্রায় ১০০ হাত জায়গা নিয়ে ভেঙে যায়। বন্যার পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় বাঁধ মেরামত করা সম্ভব নয়। আমার ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। আউশকান্দি ইউপির চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুন বলেন, কুশিয়ারা ডাইক ভেঙে যাওয়ায় আমার ইউনিয়নের প্রায় ২০ গ্রাম বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। এখনও কোনও সরকারি ত্রাণ পৌঁছায়নি বলে তিনি জানান।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ-বিন হাসান বলেন, প্রতি ঘণ্টায় পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। আমরা আশঙ্কা করছি, কুশিয়ারা ডাইক ভেঙে গেছে তাই এটা মেরামত করা হচ্ছে। বিশেষ করে আউশকান্দি, ইনাতগঞ্জ ও দীঘলবাক ইউনিয়ন বেশি ক্ষতি হয়েছে। জরুরি প্রয়োজনে সবসময় হটলাইন নাম্বারে যোগাযোগ করতে পারবেন পানিবন্দি লোকজন।

 হবিগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) নির্বাহী প্রকৌশলী তাওহীদুল ইসলাম বলেন, কুশিয়ারা নদীর পানি বিপদসীমার ৫০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ভেঙে যাওয়া বাঁধ মেরামতের জন্য আমাদের লোকজন কাজ করছে। ভাঙন রোধে ইতোমধ্যে আমরা সেখানে বালুর বস্তা ফেলেছি। ভাঙন ঠেকাতে জোরালোভাবে কাজ করে যাচ্ছি।

Digiprove sealCopyright protected by Digiprove © 2019
Acknowledgements: বাংলাট্রিবিউন
All Rights Reserved