।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

রাজশাহীর পুঠিয়ায় এক নারীকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। রোববার ভোররাতে উপজেলার লেপপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত নারীর নাম কারিমা খাতুন (৪০)। তার স্বামীর নাম শফিকুল ইসলাম।

এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে পুলিশ আবুল কাশেম (৪৫) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে। কাশেমের বাড়ি লেপপাড়া গ্রামেই। সোমবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকিল উদ্দিন আহমেদ জানান, নিহত নারীর স্বামী দুই বছর ধরে কাজের সন্ধানে বাইরে থাকেন। আর ছেলের সঙ্গে বাড়িতে থাকতেন কারিমা। রোববার রাতে ছেলে ঘরে এবং মা বাড়ির বারান্দায় ঘুমান। ভোররাতে দুর্বৃত্তরা বাড়িতে ঢুকে ওই নারীর নাকের ওপর ধারালো অস্ত্রের আঘাত করে পালিয়ে যায়। কিন্তু ঘটনার কিছুই বুঝতে পারেননি ছেলে।

এমনকি তার ঘুমও ভাঙেনি। আহত অবস্থায় ওই নারী বিছানায় পড়ে ছিলেন। সকালে প্রতিবেশিরা এ অবস্থা দেখে ছেলের ঘুম ভাঙান। কিন্তু মায়ের এ অবস্থা দেখেই ছেলে অচেতন হয়ে পড়েন। ওই সময় প্রতিবেশিরাও আহত নারীকে হাসপাতালে নিয়ে যাননি। পরে খবর পেয়ে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে পুলিশ গিয়ে কারিমাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কিন্তু অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই কারিমা মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

ওসি বলেন, কারিমাকে হত্যার ঘটনায় তার ছেলে বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি করে থানায় মামলা করেছেন। সন্দেহজনকভাবে এ মামলায় আবুল কাশেম নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। কী কারণে এই হত্যাকাণ্ড তা পুলিশ তদন্ত করছে বলেও জানান ওসি।