।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

রাজশাহী নগরের মাস্টারপাড়ার রাস্তা দখল করে অবৈধভাবে নির্মিত প্রায় একশটি দোকান ভেঙে দিয়েছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) উচ্ছেদ অভিযানের কর্মীরা। পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী রাসিকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পালের নেতৃত্বে শনিবার সকালে নগরের সাহেববাজার জিরোপয়েন্ট থেকে এই অভিযান শুরু করা হয়। তবে এই অভিযানকে প্রতিহত করতে নানাভাবে প্রতিন্ধকতার চেষ্টা করে দখলদাররা।

অভিযান চালানো দলটি দুপুর ১২টার পর কাঁচাবাজার এলাকায় তাদের অভিযান শুরু করতে গেলে, রাজশাহী কাঁচা বাজার সমিতির নামে এক দল যুবক সংঘবদ্ধ হয়ে স্লোগান দিয়ে ঘটনাস্থল উত্তপ্ত করার চেষ্টা করে ও অভিযান সংশ্লিষ্টদের নানাভাবে হুমকি প্রদান করে। এসময় অভিযান দলের সাথে থাকা পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা তাদের ছত্রভঙ্গ করে ও ম্যাজিস্ট্রেটের কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে বাপ্পি নামের এক যুবককে আটক করে।

কিছুক্ষণ পর স্থানীয়রা আবারো একত্রিত হয়ে পুলিশের হেফাজতে থাকা বাপ্পিকে ছিনিয়ে নিতে চেষ্টা চালায়।

এদিকে সাহেববাজার এলাকায় দখলদারদের বিরুদ্ধে অভিযান কালে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে তিন লক্ষ টাকার অধিক জরিমানা করা হয়েছে। নানা অনিয়মের কারণে তাদের এই জরিমানা করা হয়। অভিযানে বাধা দেয়ার অভিযোগে এসময় ২২জনকে আটক করা হয়।

রাসিকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পাল বলেন, উচ্ছেদ অভিযান চলাকালে প্রতিবন্ধকতা বা হুমকি নতুন কিছু নয়। আমরা আমাদের কাজ অব্যাহত রাখবো। সাধারণ জনগণ আমাদের সাথে আছে। আমাদের এই অভিযান জনদুর্ভোগ কমানোর জন্য পরিচালনা করছি।

এদিকে উচ্ছেদ অভিযানের মাঝে মণিচত্বর এলাকায় একদল যুবক হ্যান্ড মাইকে স্লোগান দিয়ে জানায়, আগামীকাল (রোববার) থেকে অনির্দিষ্ট কালের জন্য নগরের সকল ফুটপাত ব্যবসায়ীরা হরতাল পালন করবে। এসময় তারা বাজার এলাকার সকল ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা কামনা করে।

তবে রাজশাহী কাঁচা বাজার ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা জানিয়েছে, তারা রাসিকের মেয়রের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে আগামীতে কী করণীয় তা ঠিক করবেন।

শিগগির পদ্মা নদীর তীরে (পদ্মা গার্ডেনের পাশে) পুনর্বাসন করা হবে কাঁচামাল ব্যবসায়ীদের। আপাতত স্থাপনা উচ্ছেদের পর সেখানেই অস্থায়ীভাবে ব্যবসা করতে পারবে কাঁচামাল ব্যবসায়ীরা। এমনটাই জানালেন রাজশাহী মহানগর পাইকারী কাঁচামাল ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ইফতেখার হাসিব খান সাবু।