।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

চুয়াডাঙ্গায় স্নেহা নামে দুই বছরের একটি শিশুকে গলা কেটে হত্যা করেছে মানসিক ভারসাম্যহীন এক মা। সোমবার (১৭ জুন) সকালে জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলার সনাতনপুর গ্রামে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। পুলিশ ঘাতক মা শামীম আরা সাইমাকে গ্রেফতার করেছে। উদ্ধার করা হয়েছে হত্যার কাজে ব্যবহৃত ধারালো বটি।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, আলমডাঙ্গা উপজেলার সনাতনপুর গ্রামের গ্রাম্য ডাক্তার মামুন অর রশিদের পরিবারের সদস্যরা সকালে সবাই ঘুমিয়েছিলেন। এ সময় সবার অজান্তে তার স্ত্রী সাইমা শিশু কন্যা স্নেহাকে ঘুম থেকে উঠিয়ে বাড়ির দুই তলার ছাদে নিয়ে যান। সেখানে রান্না ঘরে থাকা ধারালো বটি দিয়ে গলা কেটে তাকে হত্যা করেন।

নিহত স্নেহার বাবা মামুন অর রশিদ জানান, সকালে ঘুম থেকে উঠে স্নেহাকে না পেয়ে খুঁজাখুজি শুরু হয়। এর কিছুক্ষণ পর বাড়ির দুই তলার ছাদের রান্না ঘরে তার গলা কাটা মরদেহ দেখতে পায় পরিবারের সদস্যরা। পরে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশকে খবর দেয়া হয়। খবর পেয়ে সকাল ৮টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে। শিশু সন্তান হত্যার দায়ে গ্রেফতার করা হয় মা সাইমাকে।