।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

অস্ত্র কেনাকাটা নিয়ে চাপ বাড়ছে মোদি সরকারের। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মন রাখতে হিমশিম খাচ্ছে ভারতের পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়।

তুরস্ক আমেরিকার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রাশিয়া থেকে সর্বাধুনিক এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধী ব্যবস্থা কিনেছে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আমেরিকা জানিয়েছে, তুরস্কের কাছে এফ-২২ ও এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান বিক্রি করা হবে না। যা যুদ্ধবিমান দেওয়া হয়েছে তা ফিরিয়ে নেওয়া হবে। কারণ তুরস্ক বিশ্বাসভঙ্গ করেছে। তুরস্ক জানিয়েছে, রুশ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা তারা নিরাপত্তার জন্যই কিনবে।

এবার ভারতকে আমেরিকার হুঁশিয়ারি, রুশ ক্ষেপণাস্ত্র ও রাশিয়ার সঙ্গে সামরিক চুক্তি একেবারে বর্জন করুন। না হলে তুরস্কের মতোই হাল হবে ভারতের। ভারতের সঙ্গে সব সামরিক সম্পর্ক ছিন্ন করব আমরা।

মোদির সরকারও সাফ জানিয়েছে, দেশের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে আপস নয়। গত অক্টোবরেই রাশিয়ার সঙ্গে দফায় দফায় চুক্তি হয়েছে, ভারত ৫০০ কোটি ডলারের বিনিময়ে শীঘ্রই এস-৪০০ ট্রায়াম্ফ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধী ব্যবস্থা কিনছে। এই চুক্তি থেকে সরে আসার প্রশ্নই নেই। এছাড়া আমেরিকার কাছ থেকে যা যা অস্ত্রশস্ত্র (কপ্টার, যুদ্ধবিমান, সাবমেরিন, গোলাবারুদ) কেনার সেটাও ভারত কিনবে। কিন্তু রাশিয়ার সঙ্গে ঐতিহাসিক সম্পর্ক ছিন্ন করার বা চুক্তি বাতিল করার প্রশ্নই ওঠে না।

ওয়াশিংটন জানিয়েছে, এস-৪০০-এর মতোই উন্নত ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরোধী ব্যবস্থা ভারতকে দেবে আমেরিকা। দেওয়া হবে চাহিদামতো সবরকমের সামরিক সরঞ্জাম। কিন্তু কিনতে পারবে না রাশিয়া থেকে এস-৪০০। ভারতের দাবি, চীন ২০১৪ সালে এই এস-৪০০ কিনে নিজেদের আকাশ প্রতিরক্ষা ঢেলে সাজিয়েছে। ভারতও তাই নিরাপত্তার প্রশ্নে পিছিয়ে থাকতে পারে না।

Digiprove sealCopyright protected by Digiprove © 2019
Acknowledgements: বাংলাদেশ প্রত more...
All Rights Reserved