।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

গত ৩ জুন দুপুরে আসামের যোরহাট থেকে ভারতীয় বিমানবাহিনীর আন্তোনভ ৩২ বিমানটি ১৩ জন আরোহী নিয়ে আকাশে উঠেছিল অরুণাচল প্রদেশের মেচুকাতে যাওয়ার জন্য। ওই পথটুকু পেরোতে এক ঘন্টাও লাগে না। কিন্তু ওড়ার আধ ঘণ্টার মধ্যেই বিমানটির সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় নিয়ন্ত্রণ কক্ষের।

রাশিয়ায় তৈরি এই সামরিক পরিবহন বিমানটির শক্ত পোক্ত বলে সুনাম আছে। ওই পথে সেটি আগে বহুবার যাতায়াত করেছে। যান্ত্রিক গোলযোগ হতে পারে ভেবে সেদিন থেকেই তল্লাশি শুরু হয়। বিমান বাহিনীর বেশ কিছু বিমান, হেলিকপ্টার ও পদাতিক সেনা আট দিন ধরে গোটা অঞ্চল চষে ফেলে। খাড়া পাহাড় আর ঘন অরণ্যের জন্য তল্লাশি অভিযান খুবই কঠিন ছিল। শেষ পর্যন্ত অরুণাচলের দুর্গম পাহাড়ের ১২ হাজার ফুট ওপরে চিন সীমান্ত ঘেঁষা একটি জায়গায় বিমানটির ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পাওয়া যায়।

ভারতীয় বিমান বাহিনীর আট জন পর্বতারোহী আজ কোনও মতে সেখানে পৌঁছাতে পেরেছেন। তাঁরা জানিয়েছেন, ১৩ জন আরোহীর কেউই বেঁচে নেই। বিমান ভেঙে পড়ার কারণ জানতে আরও কিছু সময় লাগবে।