।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

আত্মবিশ্বাস সঙ্গী করে বিশ্বকাপে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে দুই এশীয় প্রতিপক্ষ। শুক্রবার বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে ৩টায় ব্রিস্টলে টানা দ্বিতীয় জয়ের লক্ষ্যে নামবে পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা। দুই দলই বিশ্বকাপ শুরু করেছিল ব্যাটিং বিপর্যয় দিয়ে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে মাত্র ১০৫ রানে গুটিয়ে যাওয়ার পর ৭ উইকেটে হারে পাকিস্তান। আর শ্রীলঙ্কাকে ১৩৬ রানে অলআউট করে ১০ উইকেটে জিতেছিল নিউজিল্যান্ড।

এমন ব্যাটিং ধস পরের ম্যাচে কাটিয়ে ওঠে পাকিস্তান। মোহাম্মদ হাফিজের দারুণ ইনিংসে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে ৩৪৯ রানের লক্ষ্য দেয় তারা। জিততে রেকর্ড গড়তে হতো ইংলিশদের। কিন্তু তারা পারেনি ওয়াহাব রিয়াজ ও মোহাম্মদ আমিরের পেস এবং শাদাব খানের স্পিনে। এই জয় কতটা স্বস্তি পাকিস্তানকে দিয়েছে জানালেন ব্যাটিং কোচ গ্র্যান্ড ফ্লাওয়ার, বেশ কয়েকটি হারের পর এই জয় অবশ্যই আমাদের ওপর থেকে চাপ কমিয়ে দিয়েছে। মানসিকভাবে খেলোয়াড়দের কাঁধ থেকে অনেক বড় বোঝা নেমে গেছে।

শ্রীলঙ্কা অবশ্য পাকিস্তানের মতো ব্যাটিং ধস কাটিয়ে উঠতে পারেনি আফগানিস্তানের বিপক্ষে। ৯২ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়া দলটি ২০১ রানে অলআউট হয়ে যায়। কিন্তু এই অল্প রান করেও তাদের স্বস্তির জয় এনে দেয় লাসিথ মালিঙ্গা ও নুয়ান প্রদীপের গতির ঝড়। দুই ম্যাচেই মিডল অর্ডার দুর্ভাবনা বাড়িয়ে দিয়েছে। তবে অধিনায়ক দিমুথ করুণারতেœ আস্থা রাখছেন এই ব্যাটিং লাইন আপের ওপর, আমি বিশ্বাস করি আমাদের যে ব্যাটিং অর্ডার আছে সেটা সেরা। কুশল পেরেরার সঙ্গে আমি অনেক খেলেছি, তার ওপর আস্থা আছে। থিরিমানে নির্ভরশীল খেলোয়াড়, যে গতি বাড়াতে পারে। মিডল অর্ডারও ঠিক আছে।

এই একটি জয়ই পাল্টে দিয়েছে দুই দলের মানসিকতা। আত্মবিশ্বাসের কমতি নেই কারও। তবে অতীত কথা বলছে পাকিস্তানের পক্ষে। সবশেষ ৫টি ওয়ানডেই তারা জিতেছে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। আর বিশ্বকাপে ৭ বারের দেখায় সবগুলো হেরেছে লঙ্কানরা।

Digiprove sealCopyright protected by Digiprove © 2019
Acknowledgements: বাংলাট্রিবিউন
All Rights Reserved