।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

বিশ্বকাপের দামামা বেজে উঠেছে কয়েক দিন আগেই! অপেক্ষা ছিল ভারত কবে প্রথম ম্যাচ খেলতে চলেছে? সেই অপেক্ষার অবসান হবে আগামীকালই। ঠিক তার কয়েক প্রহর আগে জোরকদমে প্রস্তুতি চলছে ভারতীয় শিবিরে। নেটে পাঠানো হয় দীপক চাহর, আভেশ খান এবং খলিল আহমেদকে।

কিন্তু সংবাদমাধ্যমকে কোনও কিছু না জানিয়ে নেটে প্র্যাকটিসে পাঠানো হয় এই তিন বোলারকে। আর তারপরই সংবাদমাধ্যমের তরফে এই প্রেস কনফারেন্স বয়কট করা হয়। বিশ্বকাপ এলেই ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে ক্রিকেট দল এবং ম্যানেজমেন্টের সম্পর্ক কিছুটা সাপে-নেউলে হয়ে যায়। ২০১৫ সালের বিশ্বকাপেও ঠিক এই ঘটনা ঘটেছিল।

তবে সংবাদমাধ্যমের একাংশের দাবি, একদিন পরই ম্যাচ, কোচ রবি শাস্ত্রী বা কোনও সিনিয়ার প্লেয়ার অথবা কোনও সাপোর্ট স্টাফ অন্তত এসে কথা বলবে। কারও দেখা মেলেনি। অপেক্ষারত সাংবাদিকদের দলের ম্যানেজার এসে বলে যান, ‘চাহর এবং আভেশ মঙ্গলবারই দেশে ফিরে যাচ্ছে। আর খলিল আহমেদ দলের সঙ্গে লন্ডনে থেকে যাচ্ছে। তাই চাহর ও আভেশের মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলার প্রয়োজন আছে বলে মনে হয়।

কিন্তু তাতে চিড়ে ভেজেনি। ঘটনাটির তীব্র প্রতিবাদ করেছেন সিনিয়ার সাংবাদিকরা। তাঁদের দাবি, ভারতীয় দল চাইলেই প্রেস কনফারেন্স বাতিল করতে পারে। কিন্তু ড্যামেজ কন্ট্রোলে দীপক চাহর আর আভেশ খানের মতো জুনিয়ারদের পাঠিয়ে কী প্রমাণ করতে চাইছে ভারতীয় দল? ম্যাচের আগে দল নিয়ে সিরিয়াস প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার এখতিয়ার কি রয়েছে এই প্লেয়ারদের?

Digiprove sealCopyright protected by Digiprove © 2019
Acknowledgements: বাংলাদেশ প্রত more...
All Rights Reserved