Zee5 Contract Coming Soon

।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

ঢাকার মালিবাগ মোড়ে বিস্ফোরণে এক পুলিশ সদস্যসহ দুজন আহত হয়েছেন। সেখানে হাতবোমা ছোড়া হয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ। ঢাকায় পুলিশের ওপর ককটেল নিক্ষেপের ‘দায় স্বীকার আইএসের’। এ ঘটনার পর পুলিশের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে ঢাকায় দায়িত্বরত সব পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

রোববার রাত ৯টার দিকে মালিবাগে এ ঘটনায় আহত ট্রাফিক পুলিশের এএসআই রাশেদা আক্তার (২৮) এবং রিকশাচালক লাল মিয়াকে (৫০) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রাশেদা বাঁ পায়ে এবং লাল মিয়ার মাথায় জখম হয়েছে বলে ট্রাফিক সার্জেন্ট এনামুল হক জানিয়েছেন।

তিনি হাসপাতালে সাংবাদিকদের বলেন, রাশেদা দায়িত্বরত ছিলেন। হঠাৎ বিকট শব্দে বিস্ফোরণের সঙ্গে সঙ্গে তার পাশে থাকা একটি গাড়িতে আগুন ধরে যায়। ধারণা করা হচ্ছে কেউ হাতবোমা নিক্ষেপ করেছে।

পরে আহত দুজনকে উদ্ধার করে প্রথমে রাজারবাগ পুলিশ লাইনস হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে রাত ১০টার দিকে তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আনা হয়।

পল্টন থানার পরিদর্শক আবু সিদ্দিক জানান, মালিবাগ মোড়ে পেট্রোল পাম্পের উল্টো দিকে ফ্লাইওভারের নিচে এসবির একটি গাড়ি পার্ক করা ছিল। তার পেছনে একটি পিকআপ ছিল। হঠাৎ পিকআপে বিস্ফোরণ ঘটে আগুন ধরে যায়।

পরে পেট্রোল পাম্প থেকে অগ্নিনির্বাপনের সরঞ্জাম এনে কিছুক্ষণের মধ্যে আগুন নেভানো হয় বলে জানান তিনি।

কী থেকে এই বিস্ফোরণ ঘটেছে তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

গত ৩০ এপ্রিল গুলিস্তানে পুলিশকে লক্ষ্য করে হাতবোমা ছোড়া হয়েছিল। তখন জঙ্গি গোষ্ঠী আইএসের নামে দায় স্বীকারের বার্তাও এসেছিল। তখন পুলিশের পক্ষ থেকে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে বলে জানানো হয়েছিল, তবে তার কোনো অগ্রগতি আর জানানো হয়নি।