Zee5 Contract Coming Soon

।। নিজম্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের (রাসিক) অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে উচ্ছেদ অভিযানের রেশ কাটতে না কাটতেই ফের নগরের ফুটপাতসহ গুরুত্বপূর্ণ জায়গাগুলো দখলে যেতে শুরু করেছে। তবে রাসিক বলছে ঈদের পর পরই পুনরায় অভিযান পরিচালনা করা হবে।

চলতি বছরের এপ্রিল মাসে রাসিকের উদ্যোগে নগরজুড়ে চলে উচ্ছেদ অভিযান। এসময় আওয়ামী লীগ ও ওয়ার্কার্স পার্টিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কার্যালয় এবং বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান অবৈধভাবে দখলের অভিযোগে ভেঙে ফেলা হয়। সেইসঙ্গে বাড়ির সামনে জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করে নির্মাণসামগ্রী রাখার অভিযোগে সংশ্লিষ্ট বাড়ির মালিক ও দখলদারদের কাছ থেকে প্রায় ৩১ লাখ ৬৫ হাজার টাকা আর্থিক জরিমানা আদায় করা হয়।

তবে রাসিকের সেই উদ্যোগ বিফলে যেতে বসেছে বলে মনে করছেন নগরবাসী। তারা বলছেন, ঈদকে সামনে রেখে ফের প্রতিটি ফুটপাত ও গুরুত্বপূর্ণ সড়ক দখল হতে শুরু করেছে। আর সেই দখলকে কেন্দ্র করে উভয় পক্ষের মধ্যে অস্ত্র নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার মতো ঘটনার সৃষ্টি হচ্ছে। ফলে এবার জনদুর্ভোগের পাশাপাশি হানাহানির ঘটনা ঘটতে পারে বলে শঙ্কা করছেন তারা।

জানা গেছে দখলকে কেন্দ্র করে রোববার (১৯ মে) নগরের ভদ্রা মোড়ের পূর্বে আরডিএর একটি ফাঁকা জায়গা দখল নিয়ে ছাত্রলীগ ও স্থানীয় যুবলীগের মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়। ঐ দিন রাতে ছাত্রলীগের ২০ থেকে ৩০ জনের এক দল যুবক অস্ত্র হাতে নিয়ে ভদ্রার সেই জায়গাটি দখলে থাকা স্থানীয় যুবলীগের নেতাকর্মীদের ধাওয়া করে। এসময় যুবলীগের অপ্রস্তুত নেতাকর্মীরা পালিয়ে গেলে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। তবে এলাকাটিতে এখন পর্যন্ত উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এদিকে ঘটনার পর ঐ রাতেই পুলিশ এসে সড়ক ও ফুটপাত দখল করা দোকানিদের সরে যেতে বলেছে।

রাসিকের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সমর কুমার পাল বলেন, ঈদের কারণে ভ্রাম্যমাণ ব্যবসায়ীদের কিছুটা সময় দেয়া হয়েছে। তবে সেটি সাময়িক। তবে আমরা দ্ব্যর্থহীন ভাষায় আশ্বস্ত করতে চাই, ঈদের পরে আপনারা অবশ্যই এক অন্য রাজশাহীকে দেখতে পাবেন।

তিনি আরো বলেন, ঈদের পরে আমাদের উচ্ছেদ অভিযান পুনরায় শুরু হবে এবং আমরা সত্যিকার অর্থেই দখলমুক্ত, যানজটমুক্ত নতুন স্মার্ট রাজশাহী শহর উপহার দিতে চাই।