Zee5 Contract Coming Soon

।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

বেসামরিক কর্তৃপক্ষের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরের দাবিতে আন্দোলনরত সুদানীদের উপর অস্ত্রধারীরা হামলা করেছে। এতে পাঁচজন বিক্ষোভকারী এবং একজন সেনা কর্মকর্তা নিহত হয়েছে। দেশটির সেনাবাহিনী এক বিবৃতিতে দাবি করেছে, তাদের মেজর পর্যায়ের একজন কর্মকর্তা মারা গেছেন। তবে এই হামলার জন্য কারা দায়ী সেসম্পর্কে সরাসরি কিছু বলেনি সেনাবাহিনী।

সোমবার রাতে এই হামলার আগেই অন্তর্র্বতীকালীন একটি যৌথ কাউন্সিল গঠনের ব্যাপারে সেনাবাহিনীর সঙ্গে একমত হয় বিরোধীরা। তবে এই সরকারে সামরিক-বেসামরিক কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধিত্বের হার এবং সরকারের মেয়াদ সম্পর্কে এখনো আলোচনা হয়নি। এ বিষয়ে বুধবার দুই পক্ষের মধ্যে আরেকদফা আলোচনার কথা রয়েছে।

এর মধ্যেই সোমবার রাতে হামলার ঘটনা ঘটল। কর্তৃপক্ষ অবশ্য হামলায় একজন সেনা কর্মকর্তাসহ দু’জন মারা যাওয়ার কথা জানিয়েছে। খার্তুমে সেনাবাহিনীর হেডকোয়ার্টারের সামনে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে বেশ কিছু বেসামরিক নাগরিক আহত হয়েছে বলেও জানিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক সংবাদ মাধ্যমগুলো।

সোমবার রাতে সংবাদ সম্মেলনে মিলিটারি কাউন্সিল বলেছে, বিক্ষোভকারীদের মাঝে কিছু সশস্ত্র ব্যক্তি প্রবেশ করে এই হামলা চালায়। আন্দোলনরত সংগঠনগুলোর জোট অভিযোগ করেছে, আলোচনাকে ভণ্ডুল করতেই এমন হামলা চালানো হয়েছে। তারা এর জন্য ওমর আল বশীরের অনুগত কিছু সেনা কর্মকর্তাদের দায়ী করেছে।

বিক্ষোভরতদের প্রতিনিধিত্বকারী জোটের একজন মুখপাত্র তালহা ওসমান সোমবার জানান, আজকের আলোচনায় আমরা কর্তৃপক্ষ ও তাদের ক্ষমতার বিষয়ে একমত হয়েছি। কর্তৃপক্ষের মধ্যে আছে স্বাধীন কাউন্সিল, মন্ত্রিসভা এবং আইন প্রণয়নকারী সংস্থা।

তিনি আরও জানান, এখন মঙ্গলবার আরেকটি সভায় অন্তর্র্বতীকালীন সরকারের সময় এবং প্রতিনিধিত্বের হার সম্পর্কে আলোচনা হবে।

একই ধরনের বক্তব্য উল্লেখ করে মিলিটারি কাউন্সিলের মুখপাত্র লেফটেনেন্ট জেনারেল শামসুদ্দিন কাবাসি সোমবার বলেন, আগামীকাল আমরা প্রতিনিধিত্বের হার ও অন্তর্র্বতীকালীন সরকারের মেয়াদ নিয়ে আলোচনা করব।

Digiprove sealCopyright protected by Digiprove © 2019
Acknowledgements: ইত্তেফাক
All Rights Reserved