।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সারোয়ার হোসেন চৌধুরীকে প্রধান আসামি করে অজ্ঞাত আরও ৮-১০ জনের বিরুদ্ধে সোমবার রাতে মামলা হয়েছে। উইমেন্স মেডিক্যাল কলেজের ইন্টার্ন চিকিৎসক ডা. নাজিফা আনজুম নিশাতকে ধর্ষণ ও ছোরা দেখিয়ে হুমকি দেয়ার অভিযোগে কোতোয়ালি থানায় মামলাটি করেন ওই হাসপাতালের পরিচালক ডা. ফেরদৌস হাসান।

এর আগে গত শনিবার (১১ মে) ইন্টার্ন চিকিৎসক ডা. নাজিফা আনজুম নিশাতের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরি (নং-৬১৭ দায়ের) করেছিলেন ডা. ফেরদৌস হাসান।

মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোতোয়ালি থানার ওসি সেলিম মিঞা।

তিনি জানান, ইন্টার্ন চিকিৎসক ডা. নাজিফাকে ধর্ষণ ও ছোরা দেখিয়ে ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগে সারোয়ার হোসেনকে প্রধান আসামি করে থানায় মামলা করা হয়। মামলায় ১২ জন চিকিৎসককে সাক্ষী হিসেবে রাখা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার (৯ মে) বিকালে ১০-১৫ জন ছাত্রলীগ নেতাকর্মী পেটের পীড়ায় ভোগায় একজনকে সিলেট উইমেন্স মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। এসময় রোগীর সঙ্গে একজন থেকে বাকিদের বাইরে যেতে বলেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে চিকিৎসকের ওপর চড়াও হন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। তখন দক্ষিণ সুরমা উপজেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি সারোয়ার হোসেন চিকিৎসক নাজিফা আনজুম নিশাতকে ছুরি দেখিয়ে হত্যা ও ধর্ষণের হুমকি দেন বলে অভিযোগ করেছেন ওই চিকিৎসক। নিশাত নিজের ফেসবুক আইডিতে বিষয়টি উল্লেখ করে পোস্ট দিলে এনিয়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি হয়।

Digiprove sealCopyright protected by Digiprove © 2019
Acknowledgements: বাংলা ট্রিবিউন
All Rights Reserved