।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

দেশজুড়ে কারফিউ জারির পরও শ্রীলঙ্কায় মুসলিমবিরোধী দাঙ্গায় এক ব্যক্তি হত্যার শিকার হয়েছে। সোমবার রাতে ৪৫ বছর বয়সী ওই মুসলিম কাঠমিস্ত্রীকে তার নিজের কারখানায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যা করে একদল দাঙ্গাবাজ। সে দেশের গির্জা ও হোটেলে সাম্প্রতিক হামলার পর থেকেই খ্রিস্টান ও মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ্যে উত্তেজনা চলছে। রোববার এক ফেসবুক পোস্টকে কেন্দ্র করে  সেখানে মুসলিমবিরোধী দাঙ্গা শুরু হয়।

তিন সপ্তাহ আগে ইস্টার সানডে’র দিনে দেশটির ৩টি গির্জা ও কয়েকটি হোটেলে সিরিজ বোমা হামলায় ২৫৩ জন নিহত হয়েছিল। হামলার দায় স্বীকার করে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস বিবৃতি দেওয়ার পর থেকেই দেশটির বিভিন্ন প্রান্তে হয়রানি ও হুমকির শিকার হয়ে আসছে মুসলিম সম্প্রদায়। সেই ধারাবাহিকতায় রবিবার ফেসবুকে শুরু হওয়া বিরোধের জেরে রাজধানী কলম্বোর উত্তরের কয়েকটি জেলায় মুসলিমবিরোধী দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে। প্রাথমিকভাবে তিন জেলায়, এবং পরে দেশজুড়ে কারফিউ জারি করে সে দেশের সরকার। তা সত্ত্বেও দাঙ্গা থামানো যায়নি।

ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, পুতালাম জেলায় এক কাঠমিস্ত্রী তার নিজের কর্মস্থলেই দাঙ্গাবাজদের উন্মত্ত হিংসার বলি হয়েছে। একজন নিরাপত্তা কর্মকর্তাকে উদ্ধৃত করে এএফপি জানিয়েছে, ‘দাঙ্গাবাজরা সংঘবদ্ধ হয়ে তার কারখানায় গিয়ে ধারালো অস্ত্র ব্যবহার করে তাকে রক্তাক্ত করে। হাসপাতালে নেওয়ার অল্প সময়ের মধ্যে ওই ব্যক্তির মৃত্যু হয়।’ ওই কর্মকর্তা জানান, দাঙ্গায় এটিই প্রথম প্রাণহানির ঘটনা।

চিলাউ শহরে তিনটি মসজিদ ও মুসলিম মালিকানাধীন কয়েকটি দোকানে খ্রিস্টানদের হামলার পর দেশজুড়ে এই মুসলিমবিরোধী দাঙ্গার উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। সোমবার পুলিশ দেশজুড়ে ছয় ঘণ্টার কারফিউ জারি করার ঘোষণা দেয়। তবে জারিকৃত কারফিউ ভেঙেই সেখানে সহিংস তাণ্ডব চালানো হচ্ছে।

Digiprove sealCopyright protected by Digiprove © 2019
Acknowledgements: বাংলা ট্রিবিউন
All Rights Reserved