।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

কুষ্টিয়ার মিরপুরে ডাবলু নামে এক ব্যক্তিকে হত্যার দায়ে সাত আসামির যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে প্রত্যেক আসামিকে ২০ টাকা করে অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ৬ মাস করে সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার (০৭ মে) বেলা সাড়ে ১১টায় জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামী এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার মকছেদ আলী প্রামাণিকের ছেলে জালাল প্রামাণিক, একই এলাকার মৃত খেজের আলী বিশ্বাসের ছেলে আতর আলী, মৃত গোলাম জিলানীর ছেলে জামান হোসেন ওরফে জামিন হুজুর, আনছার আলী মোল্লার ছেলে আসাদুল মোল্লা, কেরামত মালিথার ছেলে রুবেল মালিথা, মৃত রিফাজ উদ্দিন মালিথার ছেলে আসলাম মালিথা ও কেরামত আলীর ছেলে মেহের আলী মালিথা।

এছাড়া মামলার আরেকজন আসামি ইশারত বিশ্বাস মৃত্যুবরণ করায় তার নাম মামলা থেকে বাদ দেয়া হয়। রায় ঘোষণার সময় আসামিরা উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী জানান, ২০১০ সালের ০৭ জুন মিরপুরে আধিপত্য বিস্তার, পুকুরের লিজ এবং হাটের টোল আদায়সহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে শত্রুতার জেরে ডাবলুকে গলাকেটে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের ভাই বাদী হয়ে মিরপুর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার নং-০৫, তারিখঃ ০৭/৬/২০১০।

মামলার বিবরণী ও সাক্ষ্য প্রমাণের ভিত্তিতে সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় বিজ্ঞ আদালত পেনাল কোডের ৩০২/৩৪ ধারায় আসামিদের দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড, সেইসঙ্গে ২০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও ৬ মাস করে সশ্রম কারাদণ্ড দেন।