।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রকৌশলী নওশাদ ইসলাম ও তার স্ত্রী রাজিয়া নওশাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। রোববার (৫ মে) রাজধানীর রমনা থানায় এ মামলা করা হয়। মামলার বাদী দুদক উপপরিচালক এস এম এম আখতার হামিদ ভূঞা। দুর্নীতি দমন কমিশন আইন, ২০০৪-এর ২৬ (২) ও ২৭ (১) ধারায় মামলাটি করা হয়।

২০১৪-১৫ অর্থবছরে তিতাসের কর-পরবর্তী মুনাফা হয় আগের পাঁচ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম। ওই সময় তিতাসের এমডি ছিলেন প্রকৌশলী নওশাদ। ২০১৬ সালের মার্চ মাসে দুর্নীতি ও মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগে তিতাস থেকে অপসারিত হন তিনি।

দুদকের মামলায় নওশাদ ইসলামের বিরুদ্ধে ৭৯ লাখ ৪১ হাজার ৮৩ টাকা এবং তার স্ত্রী রাজিয়ার বিরুদ্ধে ১ কোটি ৩ লাখ ৫০ হাজার ৬০৫ টাকার সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগ আনা হয়েছে। দুদকের নোটিশ পাওয়া পর গত বছরের ১০ জানুয়ারি সম্পদ বিবরণী দাখিল করেছিলেন সস্ত্রীক নওশাদ।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, প্রকৌশলী নওশাদের নেতৃত্বে অবৈধ গ্যাস সংযোগের রমরমা বাণিজ্য চলেছে তিতাসে। কর্মকর্তাদের সহযোগিতায় অবৈধভাবে গ্যাস ব্যবহার করেছে অনেকে। এসবের পেছনে রয়েছে কোটি কোটি টাকার দুর্নীতি।