।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ।।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ‘সাত পুকুর গবেষণা প্রকল্প’র আওতায় পুকুর পরিস্কার ও সৌন্দর্য বর্ধন কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। শুক্রবার (৩ মে) সকাল ৬ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জোহা হল সংলগ্ন পুকুর পাড়ে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়া।

৫০ বছর মেয়াদি মাস্টারপ্লানের আওতায় গবেষণা ও দৃষ্টিনন্দন প্রকল্প হিসেবে এই সাত পুকুর গবেষণা প্রকল্পটি বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয়া হয়। এই প্রকল্পের আওতায় পরীক্ষামূলকভাবে যেসকল পুকুরকে বেছে নেয়া হয়েছে- মন্নুজান, রোকেয়া, সোহরাওয়ার্দী ও হবিবুর হল সংলগ্ন, বিশ্ববিদ্যালয় স্টেডিয়াম সংলগ্ন, শেখ রাসেল মডেল স্কুলের সামনে এবং বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেলের সামনের পুকুর। পরবর্তীতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল পুকুরকেই এই প্রকল্পের অধীনে নেয়ার পরিকল্পনার কথা জানানো হয়।

কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে উপ-উপাচার্য বলেন, প্রশাসন পুকুরগুলোর লিজ বাতিল করে প্রকল্পের আওতায় নিয়ে আসে। প্রাধ্যক্ষ পরিষদে প্রকল্পটি অনুমোদন পাওয়ার পর ১১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠিত হয়। প্রকল্প বাস্তবায়নে এ কমিটিকে সহায়তা করছে কৃষি প্রকল্প ও ফিশারিজ বিভাগ। পুকুরগুলো সংস্কার করে মাছের বৃদ্ধি গবেষণা করা হবে। পাশাপাশি পুকুরের পাড় পরিষ্কার করে শিক্ষার্থীদের ব্যবহার উপযোগী মনোরম পরিবেশ গড়ে তোলা হবে। শিক্ষার্থীরা যেন নির্মল পরিবেশে পড়াশোনা ও আড্ডা দিতে পারে সেজন্য পুকুর পাড়ে ডাস্টবিন, শেড, ছাতা ও লাইটের ব্যবস্থা থাকবে।

শিক্ষার্থীদের সচেতনতার কথা উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, ক্যাম্পাস আমাদের সবার। শিক্ষার্থীরা যেন ময়লা ফেলে পুকুরকে দূষিত না করে সে ব্যাপারে তাদের সজাগ থাকতে হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. রবিউল ইসলাম, শহীদ শামসুজ্জোহা হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. জুলকার নাইন, মাদার বখ্শ হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আব্দুল আলীম।