Berger Viracare

।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

বৃহস্পতিবার ‘ফণি’র সম্ভাব্য গতিপথের কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে। বুধবার ঘূর্ণিঝড় পূর্বাভাস সংক্রান্ত ওয়েবসাইট উইন্ডি ডট কম যে সম্ভাব্য গতিপথ নির্ণয় করেছিলো, সেখানে এই সুপার সাইক্লোনের কেন্দ্র শনিবার রাজশাহী ও রংপুর অতিক্রম করার কথা ছিলো। তবে বৃহস্পতিবার তাদের বিশ্লেষণ দেখাচ্ছে, এর কেন্দ্র ওইদিন ভারতের মালদার বিভিন্ন এলাকা অতিক্রম করবে।

তবে পরিবর্তিত এই সম্ভাব্য গতিপথ অনুযায়ী, নওগাঁ জেলার পোরশা উপজেলা ও রংপুর জেলা দিয়ে ‘ফণি’র কেন্দ্র অতিক্রম করার সম্ভাবনা রয়েছে।

উইন্ডি ডট কমের বিশ্লেষণ বলছে, শনিবার বেলা ১১ টায় ‘ফণি’র কেন্দ্র অতিক্রম করতে পারে পশ্চিমবঙ্গের সিউরি ও রাজনগর এলাকা। রাজশাহী থেকে এর দূরত্ব প্রায় ২৫০ কিলোমিটার।

উইন্ডির তথ্যে ‘ফেণি’র পরিবর্তিত সম্ভাব্য গতিপথ

বেলা ২টায় কেন্দ্র অতিক্রম করতে পারে মালদার রামপুরহাট। চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে যার দূরত্ব ১৭৭ ও রাজশাহী থেকে ১৯০ কিলোমিটার।

ওইদিন সন্ধ্যা ৬ টায় এই ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রের অবস্থান থাকতে পারে মালদার ধুলিয়ান এলাকায়। চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে যার দূরত্ব ৯৩ ও রাজশাহী থেকে ১১০ কিলোমিটার।

এরপরেই কেন্দ্রটি বাংলাদেশ অতিক্রম করতে পারে। রাত ৮টায় এটির অবস্থান হতে পারে নওগাঁ জেলার পোরশা উপজেলায়।

রাত ১২টায় ‘ফণি’র কেন্দ্র আবারও ভারতের দিকে গিয়ে বালুরঘাট অতিক্রম করতে পারে। জয়পুরহাট থেকে এর দূরত্ব ৭০ কিলেমিটার।

রোববার রাত ২টায় এই সুপার সাইক্লোনের কেন্দ্র রংপুর অতিক্রম করার সম্ভাবনা আছে।

এদিন ভোর ৫টায় এর কেন্দ্র অতিক্রম করবে ভারতের আসামের ধুবরি এলাকা। রংপুর থেকে যার দূরত্ব প্রায় ১৩৯ কিলোমিটার।

উপকূলীয় অঞ্চলে ‘ফণি’র শক্তি বেশি থাকলেও দীর্ঘ স্থলভাগ প্রদক্ষিণ করে আসায় শনিবার নাগাদ এর শক্তিও কিছুটা হ্রাস পাবে বলে পূর্বাভাসে বলা হচ্ছে।

উইন্ডির পূর্বাভাসে আগামী ৭২ ঘণ্টা বৃষ্টিপাতের সম্ভাব্য চিত্র

তবে ঝড়ো হাওয়া ও ভারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে দেশজুড়েই।

উইন্ডির দেয়া পূর্বাভাসে দেখা যাচ্ছে, রংপুর অঞ্চলে বৃহস্পতিবার রাত থেকেই বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ভারি বৃষ্টি হতে পারে দেশের একেবারে উত্তরাঞ্চলে।

রাজশাহী অঞ্চলে শুক্রবার দুপুর থেকে বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।