।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

তুরস্কের স্থানীয় নির্বাচনে রাজধানী আঙ্কারায় বড় ধরনের পরাজয় হয়েছে রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের দল একে পার্টির। এ ছাড়া ইস্তানবুলেও ক্ষমতাসীন ও বিরোধী দলের মধ্যে হাডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে। রাজধানীতে পরাজয়ের মাধ্যমে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হলেন এরদোগান বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

এরদোগান বিগত ১৬ বছর ধরে শক্তহাতে তার দেশ শাসন করছেন। রোববারের এ নির্বাচন সামনে রেখে গত দুই মাস ধরে তিনি নিরলসভাবে জনসংযোগ চালিয়েছেন। তিনি এ নির্বাচনকে বেঁচে থাকার সম্বল বলে আখ্যায়িত করেছিলেন।

কিন্তু এরদোগানের এ পরিশ্রম ও এরদোগানকে সমর্থন দিয়ে মিডিয়ার প্রচার-প্রসার সব কিছুই ব্যর্থ হয়েছে। তুরস্কের অর্থনৈতিক মন্দা ভোটারদের ওপর ব্যাপকভাবে প্রভাব ফেলেছে বলেই ক্ষমতাসীন দলের পরাজয় ঘটেছে বলে মনে করা হচ্ছে। তুরস্কের আঙ্কারায় বিরোধীদলীয় পার্টি সিএইপির প্রার্থী মনসুর আব্বাস জয়ী হয়েছেন। তবে ইস্তানবুলে দুই দলের মধ্যে হাডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে। এখনও পরিষ্কারভাবে বলা যাচ্ছে না কোন দল জয়ী হবে।

এদিকে গতকাল স্থানীয় সরকার নির্বাচনে প্রায় সাড়ে পাঁচ কোটি ভোটার ভোট দেন। সংসদের পাঁচ দলের বাইরেও আরও সাত দল লড়েছে এবারের নির্বাচনে। ভোটে জেতার লড়াইয়ে টিকে থাকতে ক্ষমতাসীন এবং বিরোধী দলগুলো জোট করে নির্বাচন করেছে। নির্বাচনের মাঠ মূলত দুই ভাগে বিভক্ত ছিল। ক্ষমতাসীন জোট ও বিরোধী জোট।