।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

ঢাকার বনানীতে বহুতল ভবন এফ আর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় বেশির ভাগ মানুষই দর্শনার্থী হয়ে দাঁড়িয়ে ছিল। আর অনেকেই ব্যস্ত ছবি তোলা ও ভিডিও ধারণে। ছবিতে দেখা যায়, আগুন নেভানোর কাজে ব্যবহৃত ফায়ার সার্ভিসের একটি পাইপের ছিদ্র অংশ দুই হাতে চেপে ধরে আছে শিশু নাঈম। ছিদ্র হয়ে যাওয়া পাইপ দিয়ে পানি যেন অন্য জায়গায় বেরিয়ে না যায় সে জন্য ছোট দুই হাতে প্রাণপণ প্রচেষ্টা চালায় সে। নাঈমের এই ছবি ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। সবার মুখে আলোচিত হয়েছে সে।

ঘটনার পরদিন শুক্রবার সংবাদমাধ্যমের কাছে জানায় তার ইচ্ছার কথা। সে বড় হয়ে পুলিশ হতে চায়।

ঢাকার কড়াইল বস্তিতে বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকে নাঈম। সে পড়ে ব্র্যাকের আনন্দ স্কুলের পঞ্চম শ্রেণিতে। নাঈমের বাবা একজন ডাব বিক্রেতা, আর মা কর্মজীবী।

নাঈম জানায়, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা টিলিভিশনে দেখেই দৌড়ে এফ আর টাওয়ারের সামনের সড়কে উপস্থিত হয় সে। তারপর সেখানে পানির পাইপে ছিদ্র দেখে দুই হাত দিয়ে চেপে ধরে সে। এ সময় তার সঙ্গে ছিল আরও কয়েকজন শিশু। কিন্তু তারা টাকার বিনিময়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের সাহায্য করে। কিন্তু আমি কোনো টাকা নেইনি। কারণ কতগুলো মানুষ বিপদে। তাদের বাঁচানোর জন্যই আমি সাহায্য করেছি। এর বিনিময়ে টাকা নেয়া ঠিক নয়, বলে নাঈম।

প্রসঙ্গত বৃহস্পতিবার দুপুরে আগুন লাগে এফ আর টাওয়ারে। ভবনের ৯ম তলায় আগুনের সূত্রপাত। পরে ছড়িয়ে পড়ে ২৩তলা ভবনের বেশ কয়েকটি তলায়।

প্রায় সাড়ে ছয় ঘণ্টা চেষ্টার পর সন্ধ্যা ৭টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয় ফায়ার সার্ভিস।

ভয়াবহ এই আগুনে ২৫ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত হওয়া গেছে। তাদের লাশও বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। আহত অন্তত ৭৩ জন ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।