।। নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী ।।

আন্দোলন নয়, একমাত্র আইনি প্রক্রিয়াতেই খালেদা জিয়ার মুক্তি সম্ভব হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। রোববার রাজশাহীর আদালত প্রাঙ্গণে ভবন উদ্বোধনের অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, বিচার বিভাগে কর্মরতদের বেতন প্রায় দিগুণ করা হয়েছে। এজলাস ভাগাভাগি যাতে করতে না হয়, সেজন্য একটি প্রজেক্ট নেয়া হয়েছে। এই প্রজেক্টের আওতায় চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেসি এবং জেলা জজ ভবন ১০/১২ তলা ভবন নতুনভাবে নির্মিত হচ্ছে। এজলাস বেশি থাকা ভালো। আমরা জনগণকে দ্রুত বিচার দিতে চাই। এজন্য আমাদের যতটুকু আর্থিক সামর্থ্য আছে, সবটুকু বিচার বিভাগের উন্নয়নে দিতে রাজি আছি।

তিনি আরো বলেন, মামলার জট কমানোর জন্য যে পদক্ষেপগুলো নেয়া প্রয়োজন, সেটা বর্তমান সরকার নিয়েছে। অন্য কেউ নেয় নাই। অন্য কেউ আইনের শাসনে বিশ্বাসী না। অন্য যারা আছে, এতিমের টাকা আত্মাসাৎ করে জেলে গিয়ে বলে, সরকার প্রতিহিংসায় জেল দিয়েছে। প্রকৃতপক্ষে শেখ হাসিনা সরকার আইনের শাসনে বিশ্বাসী, প্রতিহিংসায় বিশ্বাসী নয়।

আলোচনা সভায় মন্ত্রী রাজশাহী এ্যাডভোকেট বার এ্যাসোসিয়েশন ভবন নির্মাণে তিন কোটি  টাকা এবং লাইব্রেরি প্রতিষ্ঠায় ১৫ লাখ টাকা অর্থ বরাদ্দের ঘোষণা দেন। এছাড়া আইনজীবীদের পক্ষে থেকে উত্থাপিত বিভিন্ন দাবি আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের আশ্বাস দেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের মাধ্যমে আমরা আইনজীবীদের জন্য বহুলত ভবন তৈরির যে কথা দিয়েছিলাম। সেই কথা আমরা রাখলাম। আমরা যে কথা দিয়ে কথা রাখি, ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের মাধ্যমে সেটি আবারো দেখানো হলো।

মেয়র আরো বলেন, দীর্ঘদিন আদালত চত্বরের কোন উন্নয়ন হয়নি। এখানকার দায়িত্ব কেউ নেয়নি। শিগগিরই আদালত চত্বরের রাস্তাঘাট, ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হবে। সিটি কর্পোরেশনের একটি মেগা প্রকল্প তৈরি করা হচ্ছে, সেটির মধ্যে আদালত চত্বরের উন্নয়ন ধরা হয়েছে। তবে তার আগেই প্রাথমিকভাবে কিছু কাজ করা হবে।

রাজশাহী এ্যাডভোকেট বার এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি অ্যাড. লোকমান আলীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা, আইন মন্ত্রণালয়ের সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক, রাজশাহী অ্যাডভোকেট বার অ্যাসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি অ্যাড. মো. ইয়াহিয়া। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন রাজশাহী অ্যাডভোকেট বার এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. একরামুল হক।

আলোচনা অনুষ্ঠানের আগে রাজশাহী অ্যাডভোকেট বার এ্যাসোসিয়েশনের বহুতল ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন মন্ত্রী। এরআগে বিমানযোগে রাজশাহীতে এসে বিমানবন্দরে পৌছালে মন্ত্রীকে ফুলেল শুভেচ্ছায় স্বাগত জানান সিটি মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন।