।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

রাঙামাটির বিলাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুরেশ কান্তি তঙ্গচঙ্গ্যাকে গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলার আলিক্ষ্যং এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে। রাঙামাটি জেলা পরিষদ সদস্য রেমলিয়ানা পাংখোয়া ও রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মুছা মাতব্বর একথা জানিয়েছেন।

বাঘাইছড়ির নয় মাইল এলাকায় সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে ব্রাশফায়ারে সাতজন নিহতের ঘটনার পরদিন এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটলো।

মুছা মাতব্বর এই হামলার জন্য সন্তু লারমার নেতৃত্বাধীন পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতিকে দায়ি করেছেন। তিনি বলেন, এই হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে শহরে বিক্ষোভ মিছিল হবে এবং কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আসিফ ইকবাল বলেন,  মঙ্গলবার সকাল ৯টার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি সুরেশ কান্তি তঞ্চঙ্গ্যাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। লাশ উপজেলা সদরে আছে।  ময়নাতদন্তের জন্য লাশ রাঙামাটিতে নেয়া প্রস্তুতি চলছে।

সোমবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে এই উপজেলায় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সমর্থিত প্রার্থী বীরোত্তম তঞ্চঙ্গ্যার কাছে পরাজিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী জয়সেন তঞ্চঙ্গ্যা।

জনসংহতি সমিতির জেলা সম্পাদক নীলোৎপল খীসা এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, আমরা এই ধরনের রাজনীতির চর্চা করি না। এসব ঘটনার সঙ্গে আমাদের জড়ানো চেষ্টা স্রেফ রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার হীনপ্রচেষ্টা।