।। বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন ।।

বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারজুড়েই বিতর্ক ম্যারাডোনার নিত্যসঙ্গী। এবার সেই বিতর্কের পালে নতুন হাওয়া লেগেছে। কিউবায় নাকি আরও তার তিন সন্তান রয়েছে। তাদের আইনি স্বীকৃতি দিতে কিউবায় যাচ্ছেন আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপজয়ী এই তারকা। ম্যারাডোনার আইনজীবী আর্জেন্টাইন মিডিয়াকে এমনটাই জানিয়েছেন।

বর্তমানে মেক্সিকান ক্লাব দোরাদোস দে সিনালোয়ার টেকনিক্যাল ডিরেক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালনরত ৫৮ বছর বয়সী ম্যারাডোনা ভিন্ন ভিন্ন নারীর সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন। পাঁচ সন্তানের জনকও হয়েছেন তিনি। এবার সেই তালিকায় যুক্ত হচ্ছে আরও তিন নাম।

আইনজীবী মাতিয়াস মোর্লা জানিয়েছেন, এ বছরের মাঝামাঝি সময়ে কিউবায় গিয়ে পিতৃত্বের পরীক্ষা দেবেন ম্যারাডোনা। আর্জেন্টাইন সংবাদ মাধ্যম ক্লারিনকে মোর্লা বলেন, আমরা ডিএনএ পরীক্ষা করব। তারা ভিন্ন ভিন্ন নারীর সন্তান এবং কিউবায় গিয়ে তাদের পরিচয় নিশ্চিত হবেন ম্যারাডোনা।

সন্তানদের সঙ্গে যোগাযোগ থাকলেও তাদের সরাসরি কখনো দেখেননি ম্যারাডোনা। তবে কিউবার আইন অনুযায়ী সন্তানদের পরিচয় দেওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেছেন এই বিশ্বসেরা ফুটবল তারকা। সন্তানদের নিজের ডাকনাম ব্যবহার করার অনুমতিও দিতে চান তিনি।

মাদকাসক্তি থেকে মুক্ত হতে ২০০০ সাল থেকে টানা ৪ বছর কিউবার রাজধানী হাভানায় কাটান ম্যারাডোনা। মাদকের বিরুদ্ধে শক্ত অবস্থানের জন্য পরিচিত কিউবা। তাছাড়া তাদের চিকিৎসা ব্যবস্থাও লাতিন আমেরিকার মধ্যে সেরা।

পুনর্বাসন প্রক্রিয়া চলার সময় কিউবার অবিসংবাদিত নেতা ফিদেল কাস্ত্রোর সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে উঠে ম্যারাডোনার। এমনকি কিউবার বিপ্লবী নেতার মুখের একটি ট্যাটুও আঁকা আছে তার শরীরে। সেসময় ম্যারাডোনাকে উৎসাহ দিতে প্রায়ই নিজের কাছে ডেকে নিতেন কাস্ত্রো এবং দুজনে মিলে রাজনীতি ও ফুটবল নিয়ে নানান আলোচনাও করতেন।