শোবিজ প্রতিবেদন

ভারতের তেলেগু ইন্ডাস্ট্রির মূলধারার একটি ছবিতে অভিনয় করে চমকে দিলেন ঢাকার মডেল ও  নায়িকা মেঘলা মুক্তা।

গত বছরের শুরুর দিকে ‘সাকালাকালা ভাল্লাবুড়ু’ নামের এ ছবিটির শুটিং হয় ভারতের অন্ধ্র প্রদেশ, তামিলনাড়ু, তেলেঙ্গানা ও কেরালায়। আর নতুন বছরে এসে মেঘলা জানালেন সুখবরটি। ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে ১ ফেব্রুয়ারি। ভারতের দক্ষিণাঞ্চলের দেড়শটি সিনেমা হলে এটি মুক্তি পাচ্ছে, জানিয়েছেন মেঘলা।

তিনি বলেন, লম্বা প্রতীক্ষা শেষে আজ (২৯ জানুয়ারি) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছি। ১ ফেব্রুয়ারি আমার অভিষেক হচ্ছে ভারতে। ছবিটি মুক্তি উপলক্ষে আমি এখন হায়দরাবাদে আছি। সবার দোয়া চাই। আশা করছি ভালো কিছুই অপেক্ষা করছে আমার জন্য।

ভারতের তেলেগু ভাষায় নির্মিত এ ছবিটি পরিচালনা করেছেন শিবা গণেশ। জানা গেছে, মেঘলা এই ছবির গুরুত্বপূর্ণ নারী চরিত্রে অভিনয় করেছেন। তার চরিত্রের নাম চৈত্রা।

এ ছবিতে তার বিপরীতে নায়ক হিসেবে আছেন তানিষ্ক রেড্ডি। অন্যদিকে মেঘলার বাবার চরিত্রে আছেন তামিল ও তেলেগু ছবির জনপ্রিয় অভিনেতা সুমন তালওয়ারকে। যিনি রজনীকান্তের ‘শিবাজি’ ও অক্ষয় কুমারের ‘গাব্বার ইজ ব্যাক’-এ খল অভিনেতা ছিলেন।

তেলেগু ভাষার বাণিজ্যিক ঘরানার এই ছবিতে অভিনয় করার অভিজ্ঞতা নিশ্চয়ই সহজ কিছু ছিল না। মেঘলা বলেন, ভারতে গিয়ে তেলেগু ভাষার ছবিতে অভিনয় করা আসলেই কঠিন একটা কাজ ছিল। কোনও দিনই এমন সুযোগ পাবো বলে আশা করিনি। এটা এক অন্য রকমের অভিজ্ঞতা।

মেঘলা জানান, ২০১৭ সালের ডিসেম্বর মাসে ভারতীয় এক বন্ধুর মাধ্যমে প্রথম কাজের প্রস্তাব আসে তার কাছে। পরে হায়দরাবাদে গিয়ে অডিশন দেন মেঘলা। এরপর একদিন জানতে পারেন অডিশনে টিকে গেছেন। শুটিংয়ের সময় ভাষা না জানায় একটু সমস্যা হয়েছিল বলে জানান তিনি।

বলেন, প্রথমদিকে খুব সমস্যায় পড়ি ভাষা নিয়ে। এরমধ্যে হায়দরাবাদে গিয়ে তেলেগু ভাষার ওপর একটা ছোট্ট কোর্সও করি। অবশ্য শুটিংয়ে সবসময় একজন দোভাষীও ছিলেন আমার জন্য। তিনি তেলেগু সংলাপগুলো ইংরেজিতে লিখে দিতেন। আর আমি বাংলা করে দৃশ্যটি বুঝে নিয়ে শুটিং করতাম।

মেঘলা জানান, সিম্ভা ফিল্মস-এর ব্যানারে নির্মিত বাণিজ্যিক ঘরানার ‘সাকালাকালা ভাল্লাবুড়ু’ ছবিটি মুক্তি পাবে দক্ষিণের পাঁচটি স্টেট তেলেঙ্গানা, তামিলনাড়ু, কেরালা, কর্নাটক ও অন্ধ্র প্রদেশের ১৫০টি হলে। ছবিটির প্রচারণা কাজে এখন তিনি ব্যস্ত সময় পার করছেন এই স্টেটগুলোতে।