বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন

বুধবার দুপুরবেলা বগুড়ার শহরতলির গোকুলে যাত্রা বিরতির সময় মির্জা ফখরুলের সামনেই লিফটে বাক-বিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন জেলা বিএনপির দুই নেতা। বগুড়া জেলা বিএনপির সভাপতি সাইফুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চাঁন বাক-বিতণ্ডায় এক পর্যায়ে হাতাহাতিতে পর্যায়ে পৌঁছান। এসময় ফখরুল ইসলাম সভাপতি সাইফুলকে নিবৃত করেন।

এ নিয়ে উভয় নেতার সমর্থকদের মাঝে উত্তেজনা দেখা দেয়। তবে কী কারণে তাদের মধ্যে এ অবস্থার সৃষ্টি হয় সে সম্পর্কে কেউ কিছু বলতে রাজি হননি। ফোন বন্ধ রাখায় জেলা বিএনপির সভাপতি সাইফুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন চাঁনের কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে সাইফুলের সমর্থক আবুল কালাম আজাদ এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

ঠাকুরগাঁও থেকে সড়ক পথে ঢাকায় ফেরার পথে বুধবার দুপুরে বগুড়া শহরতলির গোকুলে হোটেল মম ইন-এ যাত্রা বিরতিকালে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিএনপির সঙ্কটকালে নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে এসময় ফখরুল বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা না করে ধ্বংস করা হয়েছে।  তাদের ২০১৪ সালের নির্বাচন বয়কট করার সিদ্ধান্ত যে সঠিক ছিল, ২০১৮ সালের নির্বাচন তা প্রমাণ করেছে। একাদশ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ পরাজিত হয়েছে, কারণ জনগণ ভোট দিতে পারেনি। এমনকি আওয়ামী লীগের ভোটাররাও ভোট দিতে পারেননি। এ কারণে আজ সারাদেশে বিএনপি ও ধানের শীষের গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে।