বার্তাকক্ষ প্রতিবেদন

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের ঠিক আগমুহূর্তে রাজনীতিতে প্রত্যাবর্তন করলেন সেই প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। সর্বভারতীয় কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক করে তাকে উত্তর প্রদেশের পূর্বাঞ্চলের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। দলের সভাপতি তার ভাই রাহুল গান্ধী স্বাক্ষরিত এক বিবৃতির সূত্রে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো এ খবর নিশ্চিত করেছে।

কংগ্রেসের বিবৃতিতে রাহুল গান্ধী জানান, আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকেই উত্তর প্রদেশে তার দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা। আগামী মে মাসে দেশটিতে জাতীয় নির্বাচন। ১ ফেব্রুয়ারি থেকে উত্তর প্রদেশের পূর্বাঞ্চলের কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন তিনি। রাহুল বলেছেন, আমি খুবই আনন্দিত যে, খুবই যোগ্য ও পরিশ্রমী একজন ব্যক্তি হিসেবে আমার বোন আমার সঙ্গে কাজ করবেন।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, ৪৭ বছর বয়সী প্রিয়াঙ্কা ভদ্র গান্ধীকে অনেকেই সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর সঙ্গে তুলনা করেন। তার মধ্যে সহজাত ক্ষমতাসম্পন্ন নেতৃত্বগুণ ও দারুণ জনপ্রিয়তা থাকলেও এতদিন ভাই রাহুল গান্ধী ও মা সোনিয়া গান্ধীর আড়ালেই ছিলেন তিনি। ২০০৪ সালের জাতীয় ও রাজ্য নির্বাচনের পর থেকে তিনি দলের জন্য কাজ শুরু করেন।

উত্তর প্রদেশে কংগ্রেসের হয়ে ৮০টি লোকসভা কেন্দ্রে লড়াইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কংগ্রেস। এমন রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে পূর্ব উত্তর প্রদেশে কংগ্রেসের প্রধান হিসেবে প্রিয়াঙ্কার অভিষেক যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বলেই মত সংশ্লিষ্ট মহলের। পূর্ব উত্তর প্রদেশের ৩০টি কেন্দ্রের দায়িত্ব প্রিয়াঙ্কার কাঁধে। যে কেন্দ্রগুলোর মধ্যে রয়েছে মোদির বারানসি ও যোগী আদিত্যনাথের গোরক্ষপুর কেন্দ্র।