পড়তে পারবেন 2 মিনিটে

খবরের কাগজ, টেলিভিশনের পাশাপাশি বর্তমানে প্রতিদিনের খবরাখবর সংগ্রহের নতুন মাধ্যম হয়ে উঠেছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলো। তবে সমস্যা হচ্ছে অনলাইনে, বিশেষ করে ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক গণমাধ্যমে নানা স্বার্থ উদ্ধারে ভুয়া খবরের উৎপাত নিয়ে দিন দিন উদ্বেগ বাড়ছে। এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য একে একে বিভিন্ন সরকারও চাপ দিতে শুরু করেছে গুগল, ফেসবুকসহ ইন্টারনেটভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে।

ব্রিটেনের ক্ষমতাসীন দলের এক প্রভাবশালী এমপি ডেমিয়েন কলিন্স ৮ জুনের সাধারণ নির্বাচনের আগে ভুয়া খবর ঠেকাতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানান। যোগাযোগের মাধ্যমটিতে ভুয়া খবর চেনার ১০ উপায় জানিয়েছে তারা। তারা ওই উপায়গুলো জানিয়ে দ্য টাইমস ও দ্য গার্ডিয়ানের মতো জনপ্রিয় খবরের কাগজগুলোতেও বিজ্ঞাপন দিয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছে সংবাদমাধ্যম বিবিসি। এতে বিভ্রান্ত হচ্ছেন পাঠক। এই বিপত্তি কিছুটা হলেও কমিয়ে আনতে নানা পদক্ষেপ নিয়েছে ফেসবুক।

খবরের শিরোনামের দিকে, বানান এবং ছবির দিকে বিশেষভাবে নজর দিতে বলেছে। তারই প্রেক্ষাপটে ফেসবুকের এই উদ্যোগ। দশটি পরামর্শ দেওয়া হয়েছে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের।

  • শিরোনাম নিয়ে সন্দিহান হতে হবে ভুয়া খবরের শিরোনামগুলোতে চমক দেওয়া অবাস্তব কথাবার্তা থাকে। সাধারণত লেখা হয় ক্যাপিটাল লেটারে। শেষে দাঁড়ির বদলে একটি বিস্ময়সূচক চিহ্ন থাকে।
  • ইউআরএল লক্ষ্য করুন: সন্দেহজনক ইউআরএল অর্থাৎ ওয়েবসাইটের ঠিকানা দেখলে মূল ওয়েবসাইটে গিয়ে পরীক্ষা করা উচিত।
  • খবরের সূত্র খেয়াল করুন: যে সূত্রে খবরটি আসছে সেটি কতটা নির্ভরযোগ্য তা যাচাই করা জরুরি।ষ বানান বা ফরম্যাটিং খেয়াল করুন ভুয়া খবর ছড়ানো ওয়েবসাইটগুলোতে বানান ভুল থাকে, খবরের ফরম্যাটে গণ্ডগোল থাকে।
  • ছবি লক্ষ্য করুন: ভুয়া খবরে ব্যবহৃত ছবি বা ভিডিওতে অনেক কারসাজি করা থাকে। সন্দেহ হলে যাচাই করা উচিত।
  • দিনক্ষণের দিকটি খেয়াল করুন : ভুয়া খবরগুলোতে অনেক সময় ঘটনার দিনক্ষণে পরিষ্কার অসঙ্গতি চোখে পড়ে।
  • প্রমাণ যাচাই করুন: লেখকের পরিচয় যাচাই করা উচিত। বেনামি সূত্রে লেখা কোনো সংবাদ নিয়ে সন্দিহান হতে হবে।
  • অন্য জায়গায় খবরটি দেখুন: অন্য কোনো সংবাদমাধ্যমে যদি সেই খবর প্রকাশিত না হয়, তা হলে সেটি ভুয়া হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।
  • খবরটি কি কৌতুক?: খবর কি আসল নাকি স্যাটায়ার অর্থাৎ কৌতুক সেটা বিবেচনা করা উচিত। যে সূত্রে খবর দেয়া হচ্ছে সেটি এই ধরনের কৌতুকপূর্ণ খবর ছড়ায় কিনা তা পরীক্ষা করা উচিত।
  • ইচ্ছে করে মিথ্যা ছড়ানো হয়: কোনো খবর পড়ার পর চিন্তা করুন। বিশ্বাসযোগ্য মনে হলেই শুধু শেয়ার করবেন না হলে নয়

Berger Weather Coat